সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

উত্তেজনায় ঠাসা জার্মান-ইংলিশ লড়াই শেষ সমতায়

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৪০

ওয়েম্বলিতে সাবেক দুই বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের লড়াই উত্তাপ ছড়ালো প্রতি মুহুর্তে। জার্মানির দুই গোলে এগিয়ে যাওয়া, ইংল্যান্ডের সমতায় ফিরে এগিয়ে যাওয়া, আবার জার্মানির সমতায় ফেরা, পুরো যেন নাটকের চিত্রনাট্যের জন্ম দিয়েছে ওয়েম্বলির এই ম্যাচ।

উত্তেজনায় ঠাসা ন্যাশনস লিগের এই ম্যাচ শেষ পর্যন্ত ড্র হয়েছে ৩-৩ গোলে। ম্যাচের সবগুলো গোলই হয়েছে দ্বিতীয়ার্ধ্বে।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) উয়েফা ন্যাশনস লিগের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি ও একবারের চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড। ম্যাচের প্রথমার্ধ্ব দেখে যেকোনো দর্শকের কাছে ম্যাড়ম্যাড়ে ম্যাচই মনে হতে পারে। তবে সব জাদু যে জমে ছিলো ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধ্বে। 

সাম্প্রতিক ফর্ম আর শক্তিমত্তায় ম্যাচের আগে এগিয়ে ছিল জার্মানি। তবে হাঙ্গেরির কাছে শেষ ম্যাচে হেরে তাদের ওপর চাপও ছিলো ঘুরে দাঁড়ানোর। 

দুই বিশ্বচ্যাম্পিয়নের লড়াই হলো সমানে সমানেই। প্রথমার্ধ্বে আক্রমণে এগিয়ে থাকলেও তেমন কোনো গোলের সুযোগ সৃষ্টি করতে পারেনি হ্যানসি ফ্লিকের দল। 

গোলশূণ্য প্রথমার্ধ্ব শেষে দ্বিতীয়ার্ধ্বের শুরুতেই ২ গোল দিয়ে স্বাগতিকদের বিপক্ষে জয়ের স্বপ্নই দেখছিলো জার্মানরা।  ম্যাচের ৫২ মিনিটে জামাল মুসিয়ালাকে করা হ্যারি ম্যাগুয়েরের ফাউলের কল্যাণে পাওয়া পেনাল্টি থেকে জার্মানিকে এগিয়ে নেন ইলকায় গুন্ডোগান। 
 
ম্যাচের ৬৭ মিনিটে লিড দ্বিগুণ করে জার্মানরা। কাউন্টার অ্যাটাক থেকে বল পেয়ে টিমো ওয়ের্নার বল বাড়ান কাই হাভার্টজের দিকে। বাঁ পায়ের জোরালো শটে জার্মানিকে ২-০ গোলে এগিয়ে নেন হাভার্টজ।

নিজেদের মাঠে হার এড়াতে মরিয়া ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেট বদলি হিসেবে মাঠে নামান বুকায়ো সাকা আর ম্যাসন মাউন্টকে। এই দুজন মাঠে নেমেই আক্রমণের গতি বাড়ায়। মাত্র পাঁচ মিনিটের মধ্যে দুই গোল শোধ দিয়ে সমতায়ও ফিরে আসে ইংল্যান্ড। 

ম্যাচের ৭১ মিনিটে জেমস রিসের ক্রস থেকে বল পেয়ে গোলে শট নেনে লুক শ। জার্মান গোলরক্ষক টের স্টেগান বলকে বাঁধা দিলেও তা যথেষ্ট ছিলো না। 

এই গোলের ঠিক চার মিনিট পরই বুলেট গতির এক শটে ইংল্যান্ডকে সমতায় ফেরান বদলি নামা ম্যাসন মাউন্ট।  

সমতায় ফেরার পর আক্রমণের ধার আরো বাড়ায় ইংলিশরা। আক্রমণের ধারাবাহিকতায় ৮৩ মিনিটে ডি-বক্সে ফাউল আদায় করে নেন ইংলিশ মিডফিল্ডার জ্যুড বেলিংহ্যাম। পেনল্টি থেকে এবার ইংল্যান্ডকে এগিয়ে নেন অধিনায়ক হ্যারি কেইন।

৩-২ গোলে এগিয়ে যখনই জয়ের স্বপ্ন দেখছে ইংল্যান্ড তখনই আবার জার্মানদের উল্লাস। ৮৭ মিনিটে জার্মান উইঙ্গার সার্জ গ্যানাব্রির শত কোনমতে আটকালেও পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি ইংলিশ গোলরক্ষক নিক পোপ। ছুটে এসে তার হাত থেকে বেরিয়ে যাওয়া বল জালে জড়িয়ে জার্মানদের সমতায় ফেরান হাভার্টজ। 

ম্যাচের ৯০ মিনিটে ইংল্যান্ড অবশ্য আরেকটি গোল পেতে পেতেও পায়নি। তবে গোলরক্ষক স্টেগানের নৈপুণ্যে সে যাত্রা বেঁচে যায় জার্মানরা।  

ন্যাশনস লিগের এই ম্যাচের পর ৬ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে নিজেদের গ্রুপে তিন নাম্বারে জার্মানি। আর মাত্র ৩ পয়েন্ট নিয়ে সবার নিচে ইংল্যান্ড।

গ্রুপের আরেক ম্যাচে হাঙ্গেরিকে ২-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপের শীর্ষেই রয়েছে ইতালি। আর দ্বিতীয়স্থানে রয়েছে হাঙ্গেরি। 

ইত্তেফাক/এসএস