রোববার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বিনা নোটিশে উচ্ছেদে, অভিযোগ ব্যবসায়ীদের

আপডেট : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৩৯

বিনা নোটিশে কক্সবাজারের কলাতলীর লংবিচ এলাকায় দেড় শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদ করায় কয়েক কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন ব্যবসায়ীরা। উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও বিনা নোটিশে তাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে। এমন অভিযোগ করছেন ব্যবসায়ীরা।  

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) কক্সবাজার প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা এ দাবি করেছেন। একদিনও সময় না দিয়ে উচ্ছেদের কারণে তাদের কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ দেওয়ারও দাবি করেন তারা।

ব্যবসায়ীদের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে ব্যবসায়ী একরামুল হক জুয়েল বলেন, আমরা কক্সবাজার কলাতলী প্রধানসড়কের হোটেল লং বিচের সামনের জমির মালিক গিয়াস উদ্দিনের কাছ থেকে ভাড়া নিয়ে শতাধিক শুটকি দোকানসহ অন্যান্য দোকান তৈরি করে গত ৩ বছর ধরে শান্তিপূর্ণভাবে ব্যবসা করে আসছি। 

কিন্তু গত ২৭ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩টার দিকে আমাদের কোন দোকানদারকে না জানিয়ে কক্সবাজার গণপূর্ত অধিদপ্তর কর্তৃক অভিযান চালিয়ে সকল দোকান ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেওয়া হয়। এতে আমাদের অন্তত ৩ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ ছাড়াও দোকান ভাঙ্গানোর সময় আরও ২ কোটি টাকার মাছ, মালামাল ও নগদ টাকা লুট করেছে- দোকান ভাঙতে আসা লোকজন।

সংবাদ সম্মেলনে একরামুল হক জুয়ের ছাড়াও ব্যবসায়ী জাকের হোসেন, শ্যামল, বাদশা, ফজলুর করিম, মিজানুর রহমান, ফারুক আজম, মোতাহের এবং জমি মালিকানা দাবি করা গিয়াস উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

প্রকল্প তদারক কর্মকর্তা কক্সবাজার গণপূর্ত বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান বলেন, আদালতের যথাযথ নির্দেশনায় আমরা গণপূর্তের জমিটি জবরদখল মুক্ত করেছি। জবরদখলকারীরা আইনের চোখে অপরাধী। তাদের নোটিশ দিয়ে উচ্ছেদে যাওয়ার যৌক্তিকতা নেই।

ইত্তেফাক/এমএএম