রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নিরাপত্তা পরিষদের নিন্দা প্রস্তাবে ভোটদানে বিরত চীন-ভারত

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২২, ০১:১৯

ইউক্রেনের চারটি অঞ্চলকে রাশিয়ার ভূখণ্ডের সঙ্গে যুক্ত করার নিন্দা জানিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আনা একটি প্রস্তাবে ভোট দেয়নি ভারত ও চীন। যুক্তরাষ্ট্র ও আলবেনিয়া এই নিন্দা প্রস্তাব উত্থাপন করে। শেষ পর্যন্ত রাশিয়ার ভেটোতে প্রস্তাবটি আটকে যায়।

গত শুক্রবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের দখলকৃত চারটি অঞ্চলকে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন। এর কয়েক ঘণ্টা পরই নিরাপত্তা পরিষদে নিন্দা প্রস্তাব উত্থাপন করে যুক্তরাষ্ট্র ও আলবেনিয়া। জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত লিন্ডা থমাস গ্রিনফিল্ড বলেন, সার্বভৌমত্ব, আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষা, শান্তি ও নিরাপত্তা প্রচারের জন্যই নিরাপত্তা পরিষদ তৈরি হয়েছিল। জাতিসংঘ এমন একটি ধারণার ভিত্তিতে তৈরি করা হয়েছিল যে, আর কখনোই এক দেশকে জোর করে অন্যের ভূখণ্ড দখল করতে দেওয়া হবে না। একটি সার্বভৌম দেশের ভূখণ্ডকে সংযুক্ত করার চেষ্টা জাতিসংঘের মূলনীতির বিরোধী এবং আন্তর্জাতিক আইনের স্পষ্ট লঙ্ঘন। তিনি সদস্য দেশগুলোকে ইউক্রেনের কোনো পরিবর্তিত অবস্থাকে স্বীকৃতি না দেওয়ার আহ্বান জানান। পরে এই প্রস্তাবের ওপর ভোটাভুটিতে ভোটদানে বিরত থাকে ভারত ও চীনসহ চারটি দেশ। বিপক্ষে ভোট দিয়েছে শুধু রাশিয়া।

এ বিষয়ে গ্রিনফিল্ড বলেন, এই প্রস্তাবে রাশিয়ার পক্ষে একটি দেশও ভোট দেয়নি। বিরত থাকার মানে এই নয় যে তা রাশিয়ার পক্ষে গেছে। তিনি বলেন, রাশিয়ার কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানাতে ওয়াশিংটন জাতিসংঘের ১৯৩ সদস্যের সাধারণ পরিষদে যাবে। রাশিয়া ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগ করে এই প্রস্তাব আটকে দিয়েছে। জাতিসংঘে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভাসিলি নেবেজিয়া বলেন, ঐ অঞ্চলগুলোর বাসিন্দারা রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার বিষয়টি বেছে নিয়েছে। জাতিসংঘে ইউক্রেনের রাষ্ট্রদূত সের্গেই কিসিলিিসয়া বলেন, রাশিয়া এখন বিচ্ছিন্ন। জাতিসংঘের সনদ থেকে শুরু করে সাধারণ প্রতিশ্রুতির বাস্তবতা অস্বীকার করতে তারা মরিয়া। যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত বারবারা উডওয়ার্ড বলেন, রাশিয়া তাদের অবৈধ কর্মকাণ্ড রক্ষায় ভেটো ক্ষমতার অপব্যবহার করেছে। ইউক্রেনের অঞ্চল সংযুক্ত করার কোনো আইনি ভিত্তি নেই।

চীন এই প্রস্তাবে ভোটদানে বিরত থাকলেও দীর্ঘ ও বিস্তৃত সংকট নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে। জাতিসংঘে চীনের রাষ্ট্রদূত ঝাং জুন বলেন, সব দেশের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষা করা উচিত। একই সঙ্গে সব দেশের বৈধ নিরাপত্তা উদ্বেগও গুরুত্বসহকারে নেওয়া উচিত। চীন সব পক্ষকে কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের জন্য আহ্বান জানিয়েছে।

এদিকে শুক্রবার মেক্সিকোতে ইউনেসকোর একটি আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক সম্মেলন বয়কট করেছে কয়েক ডজন দেশের প্রতিনিধিরা। রুশ প্রতিনিধি বক্তব্য দিতে উঠলে ইউক্রেনের ভূমি সংযুক্ত করার ঘোষণার প্রতিবাদে তারা সম্মেলনস্থল ত্যাগ করেন।

 

ইত্তেফাক/ইআ