বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

কোথায় কাটছে তাদের পূজা

আপডেট : ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৮:২৯

করোনার কারণে গেল দুই বছর দুর্গাপূজা সেভাবে উদ্‌যাপন করা সম্ভব হয়নি। এবারের উৎসবটা তাই মিস করতে চান না তারকারা। সনাতন ধর্মাবলম্বী তারকাদের কেউ এখন গ্রামের বাড়িতে, কেউ ঢাকায়। আবার কলকাতায়ও আছেন কেউ।

কুমার বিশ্বজিৎ
চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কেটেছে সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিতের শৈশব। বড় আয়োজনে সেখানে পূজা উদ্‌যাপন করা হতো। তার সঙ্গে কথা বলে বোঝা যায়, শৈশবের পূজার আনন্দটাই ছিল আলাদা।

কুমার বিশ্বজিতের এবারের পূজা কাটছে ঢাকায়। কোনো অনুষ্ঠানও সেভাবে রাখেননি। এবারের পূজায় সবচেয়ে বেশি মিস করছেন মাকে। কারণ, গত বছরের পূজার আগেই পৃথিবীর মায়া কাটান বিশ্বজিতের মা।

তিনি বলেন, ‘ছেলেবেলায় পূজায় পাঁচন রান্না করতেন মা। সেই পাঁচনের স্বাদ এখনো মুখে লেগে আছে। আরও কত কী রান্না করতেন! এখন পূজা আসে কিন্তু সেই খাবার আর খাওয়া হয় না। তাই পূজা এলে মাকে ছাড়া খারাপ লাগে।’

চঞ্চল চৌধুরী
স্ত্রী আর সন্তান নিয়ে ঢাকায় থাকলেও একটা নির্দিষ্ট সময়ে অভিনয়শিল্পী চঞ্চল চৌধুরীর গ্রামের বাড়ি যাওয়া চাই–ই চাই। যত ব্যস্ততাই থাক, পূজার এই সময়ে এক দিনের জন্য হলেও বাড়ি যেতে হবে। এবারও পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়ি পাবনার সুজানগরের কামারহাটে গেছেন চঞ্চল চৌধুরী। সঙ্গে স্ত্রী ও সন্তান। পূজার কয়েকটা দিন একসঙ্গে কাটিয়ে আবার ৭ অক্টোবর ঢাকায় ফিরবেন চঞ্চল।


অপু বিশ্বাস
পূজাটা এবার কলকাতায় কাটাচ্ছেন অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। সঙ্গে আছে ছেলে আব্রাহাম খান ও পরিবারের অন্য সদস্যরা। 
অপু বিশ্বাস জানালেন, ‘মাসির বাড়িতে আছি। কলকাতায় অনেক আত্মীয়স্বজন। কাজের ব্যস্ততায় সবার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়ে ওঠে না। তাই এই সময় সুন্দর কাটছে।

তিনি বললেন, ‘পূজা দেখতে বের হয়েছি। মণ্ডপে গিয়েছি। রাজবাড়ী নামে একটি জায়গায় বড় পূজা হয়। ওটা অনেক ভালো জায়গা, তারকারা ওখানে বেশি আসেন। আমিও গিয়েছিলাম।’ তিনি বলেন, ‘পূজামণ্ডপে ঘোরাঘুরি, আত্মীয়স্বজন ও পরিবারের অন্যদের নিয়ে সুন্দর সময় কাটানোর চেষ্টা করছি।’ অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে ঢাকায় ফিরবেন অপু।

বিদ্যা সিনহা মিম
পূজার সময়টায় সব সময় রাজশাহীতে দাদা–নানার বাড়িতে যান বিদ্যা সিনহা মিম। বিনোদন অঙ্গনে কাজ শুরুর পর এবারই প্রথম রাজশাহীতে যাওয়া হচ্ছে না। কারণ, বিয়ের পর এবারই প্রথম শারদীয় পূজা। তাই শ্বশুরবাড়ি কুমিল্লা শহরে পূজা উদ্‌যাপন করতে যাচ্ছেন মিম। 

মিম বলেন, ‘নবমী ও দশমীর দিন শ্বশুরবাড়িতে থাকব। যেহেতু বিয়ের পর প্রথম পূজা, তাই ওখানকার সবার সঙ্গে আনন্দ উদ্‌যাপন করতে চাই। তার আগের সময়টা ঢাকায় কাটাচ্ছি। স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের পাশাপাশি মা–বাবার জন্য পাঞ্জাবি, শাড়ি, চুড়ি ও গয়না কিনেছেন। সারা বছর কাজের কারণে আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে দেখাসাক্ষাৎ হয় না। সবাই এই সময়টায় এক হই। দেখা হয়। বছরের সব জমানো কথা নিয়ে আড্ডায় মেতে উঠি।’

ইত্তেফাক/বিএএফ