শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আবরারের স্মরণ সভায় হামলার অভিযোগ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে, আহত ১৩

আপডেট : ০৭ অক্টোবর ২০২২, ১৮:১৬

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণ সভায় ছাত্রলীগ হামলা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (৭ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৩ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যায়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এই ঘটনা ঘটে। 

এই ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র অধিকার পরিষদের অন্তত ১৩ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। আহতরা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজসহ রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বলে জানায় ছাত্র অধিকার পরিষদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসেন।

ছবি: ইত্তেফাক

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুক্রবার বিকেল সাড়ে তিনটায় আবরার ফাহাদের স্মরণ সভা উপলক্ষে ব্যানার হাতে দাঁড়ায় ছাত্র অধিকার পরিষদের অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী। সভাটি রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে শুরু হলে প্রথমে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়বিষয়ক সম্পাদক মো. আলামীন রহমান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব খানের নেতৃত্বে একদল নেতা-কর্মী বাধা দেয়। পরে লাঠি লাঠিসোঁটা শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের শতাধিক ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা হামলা চালায়। 

ছবি: ইত্তেফাক

হামলায় ছাত্র অধিকার পরিষদের ১৩ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাবি শাখা ছাত্র অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসেন বলেন, ‘আমরা সুষ্ঠুভাবে বুয়েটে নির্মমভাবে হত্যার শিকার হওয়া আবরার ফাহাদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা করছিলাম। কিন্তু ছাত্রলীগ হঠাৎ এসে আমাদের ওপর আক্রমণ করে। আমাদের নির্মমভাবে মারে। এতে আমাদের ১৩ জন আহত হয়েছেন। যার মধ্যে ৫-৬ জনের অবস্থা খুবই গুরুতর।’ 

ছবি: ইত্তেফাক

তবে হামলার বিষয়টি অস্বীকার করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব খান। তিনি বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কখনো জঙ্গিবাদ, মৌলবাদের ঠিকানা হতে পারে না। তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বহিরাগতদের মাধ্যমে জঙ্গি কার্যক্রম পরিচালনা করতে চায়। তাদের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে চায়। যা সাধারণ শিক্ষার্থীদের মনে আঘাত হানে। ফলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাদের প্রতিহত করেছেন।’ 

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, ‘বিষয়টি আমি শুনেছি। আমাদের প্রক্টরিয়াল বডি খোঁজ-খবর নিচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে যাতে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা না ঘটে, অছাত্র সূলভ আচরণ যাতে কেউ না করে সে অনুরোধ আমরা করবো।’

ইত্তেফাক/এএএম