বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে অন্তত ৩৩ জনের মৃত্যু

আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২২, ০৪:৩২

নেপালের পশ্চিমাঞ্চল জুড়ে বন্যা ও ভূমিধসে অন্তত ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত সপ্তাহে উত্তর-পশ্চিমের কারনালি প্রদেশে প্রবল বৃষ্টিপাতের পর দেখা দেওয়া বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, সেখান থেকে কয়েক হাজার বাসিন্দাকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তুষারধস ও বন্যায় কয়েক শ বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

প্রদেশটিতে অন্তত ২২ জন এখনো নিখোঁজ রয়েছে এবং আরো বহু লোক আহত হয়েছে। অবিরাম বৃষ্টির মধ্যে পার্বত্য এলাকায় পৌঁছাতে বিভিন্ন অসুবিধার সম্মুখীন হওয়ার কথা জানিয়েছেন উদ্ধারকারীরা।  পুলিশের এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘বিভিন্ন স্থানে পুলিশ কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে। আটকে পড়া লোকজনকে উদ্ধারে হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি বলেন, আবহাওয়া প্রতিকূলে থাকায় উদ্ধার কাজে একটু সমস্যা হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। নিম্নভূমির কালিকট জেলা থেকে মানুষ নিখোঁজ হওয়ার খবর সবচেয়ে বেশি এসেছে। গত সপ্তাহে প্রবল বৃষ্টির সতর্কতা জারির পর কয়েক হাজার মানুষকে তাদের বাড়িঘর থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। নেপালের জরুরি বিভাগ জানিয়েছে, কারনালি প্রদেশের কয়েকটি এলাকায় কারনালি নদীর পানি ১২ মিটারেরও বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে।

নদীটির ওপরের বেশ কয়েকটি ঝুলন্ত সেতু বন্যার পানিতে ভেসে গেছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে। হেলিকপ্টারযোগে ঐ অঞ্চলে ত্রাণ পাঠিয়েছেন সরকারি কর্মকর্তারা। জাতিসংঘের মানবিক সংস্থাগুলো জানিয়েছে, তারা নেপালের পশ্চিমাঞ্চলের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোতে খাবার ও ওষুধ বিতরণ করছে। নেপালে বর্ষাঋতু প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। সাধারণত জুন থেকে শুরু হয়ে ঋতুটি অক্টোবর পর্যন্ত স্থায়ী হয়। দেশটির জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছর বৃষ্টিজনিত বিভিন্ন দুর্যোগে অন্তত ১১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ইত্তেফাক/ইআ