রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অবশেষে টুইটারের মালিক হলেন ইলন মাস্ক

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২২, ১০:০১

বিশ্বের শীর্ষ ধনী ইলন মাস্ক ৪৪ বিলিয়ন ডলারে টুইটার কেনার চুক্তি সম্পন্ন করেছেন। এর মধ্য দিয়ে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে টুইটারের নিয়ন্ত্রণ নিলেন। আলজাজিরা ও বিবিসির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পরাগ আগরওয়ালসহ বেশ কয়েকজন শীর্ষ ব্যক্তিকে ছাঁটাই করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মাস্ক টুইটারে জানান, অর্থ উপার্জনের জন্য তিনি টুইটার কিনতে আগ্রহী নন। মানবতাকে সাহায্য করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মটি কিনেছেন। তিনি সভ্যতার একটি সাধারণ 'ডিজিটাল টাউন স্কয়ার' তৈরি করতে চান।

মাস্ক লিখেছেন, মানবতার ভবিষ্যৎ এমন হওয়া উচিত, যেখানে সমস্ত পক্ষের স্বাধীন মতামত প্রকাশের একটা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম থাকবে, সুস্থ পরিবেশে বিতর্ক হবে। বর্তমানে বিপজ্জনক পরিস্থিতি রয়েছে, যেখানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কট্টর দক্ষিণপন্থী ও কট্টর বামপন্থীদের কয়েকটি গোষ্ঠীতে ভাগ হতে চলেছে। এ বিষয়গুলো সমাজে ঘৃণা ও বিভাজন বাড়াবে।

ক্যালিফোর্নিয়ার গারবার কাওয়াসাকি ইনভেস্টমেন্টের প্রধান নির্বাহী ও টুইটার বিনিয়োগকারী রস গারবার বিবিসিকে নিশ্চিত করেছেন, চুক্তিটি সম্পন্ন হয়েছে।

টুইটারের হেড-অফিসে কর্মীদের সঙ্গে ইলন মাস্ক

এদিকে, বেশকিছু মার্কিন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুসারে, কোম্পানির প্রধান নির্বাহী আগরওয়াল, প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা নেড সেগাল ও ফার্মের শীর্ষ আইন ও নীতিনির্বাহী বিজয়া গাড্ডে আর কোম্পানির সঙ্গে নেই। বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) ইলন টুইটারের বিভিন্ন প্রধান কর্মীদের ছাঁটাই করেছেন।

গত জুলাই মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে টুইটার কেনার চুক্তি থেকে বেরিয়ে যান ইলন মাস্ক। এরপর ক্রয় প্রক্রিয়া এগিয়ে নিতে বাধ্য করার জন্য ডেলাওয়্যার চ্যান্সারি আদালতে তার নামে মামলা করে টুইটার কর্তৃপক্ষ। পরে আদালত ইলন মাস্ককে চুক্তি করার জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দেন। আদালতের রায় অনুযায়ী শুক্রবারের (২৮ অক্টোবর) মধ্যে টুইটার কেনার চুক্তি করতে হবে বলে ইলনকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

মাস্ক তার টুইটার প্রোফাইলের বায়ো পরিবর্তন করে 'টুইট চিফ' লিখেছেন। পাশাপাশি তিনি তার প্রোফাইলে লোকেশন পরিবর্তন করে টুইটার সদর দফতর করে দিয়েছেন।

ইত্তেফাক/ডিএস/এসকে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন