বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অজিদের কাছে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হার

আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৫৩

টি-২০ বিশ্বকাপের শিরোপা জিতে ফুরফুরে মেজাজে ছিলো ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপ শেষেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজ খেলতে নামে ইংল্যান্ড। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৬ উইকেটে হেরেছে ইংল্যান্ড। বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) অ্যাডিলেড ওভালে টস জিতে ইংল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় অজি অধিনায়ক প্যাট কামিন্স।

প্রথমে ব্যাট করে ডেভিড মালানের সেঞ্চুরিতে ভর করে বড় সংগ্রহ পায় ইংলিশরা। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে প্রথমেই চাপে পড়ে যায় ইংল্যান্ড। মাত্র ৩১ রানে তিন ব্যাটারকে হারায় ইংল্যান্ড।

তবে ওয়ান ডাউনে নামা মালান ব্যাট চালিয়ে যান সাবলীল ভাবে। স্যাম বিলিংসকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন মালান।

কিন্তু দলীয় ৬৬ রানে ফের উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। ২২ বলে ১৭ রান করে আউট হন স্যাম বিলিংস। তার বিদায়ের পর ক্রিজে আসেন অধিনায়ক জস বাটলার। বাটলারকে সঙ্গে নিয়ে ৫২ রানের জুটি গড়েন মালান।

তবে দলীয় ১১৮ রানে ৩৪ বলে ২৯ রান করে সাজঘরে ফিরে যান জস বাটলার। এরপর লিয়াম ডউসনের সঙ্গে ৪০ ও ক্রিস জর্ডানকে সঙ্গে নিয়ে ৪১ রানের জুটি গড়েন মালান। লিয়াম ডউসন ১৭ বলে ১১ ও ক্রিস জর্ডান ১৮ বলে ১৪ রান করে ফরে যান সাজঘরে।

তাদের বিদায়ের পর উইলির সঙ্গে ৬০ রানের জুটি গড়েন মালান। এর মাঝে নিজের শতক পূরণ করেন এই ব্যাটার। তবে দলীয় ২৫৯ রানে ১২৮ বলে ১৩৪ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলে আউট হন মালান। 

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৮৭ রান সংগ্রহ করে ইংল্যান্ড। উইলি ৪০ বলে ৩৪ রান করে অপরাজিত থাকেন। অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে প্যাট কামিন্স ও অ্যাডাম জাম্পা নেন ৩ টি করে উইকেট।

২৮৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দুই অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও ট্রাভিস হেডের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় অস্ট্রেলিয়া। ইংলিশ বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে ওপেনিং জুটিতে ১৪৭ রান তুলে দুই অজি ওপেনার। এরপর ৫৭ বলে ৬৯ রান করে আউট হন ট্রাভিস হেড। হেডের বিদায়ের পর স্টিভেন স্মিথকে সঙ্গে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন ওয়ার্নার। 

তবে দলীয় ২০০ রানে ৮৪ বলে ৮৬ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরে যান ওয়ার্নার। এরপর ক্রিজে এসে দ্রুতই আউট হন মার্নাস লেবুশানে.৬ বলে মাত্র ৪ রান করে আউট হন তিনি।

তার বিদায়ের পর ক্রিজে আসেন অ্যালেক্স ক্যারি। তিনিও টিকতে পারেননি বেশিক্ষণ। দলীয় ২৪৪ রানে ২৮ বলে ২১ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন।

এরপর ক্যামেরুণ গ্রিণকে সঙ্গে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন স্মিথ। ৩ ওভার ১ বল হাতে রেখেই জয়ের দেখা পায় অস্ট্রেলিয়া। স্মিথ ৭৮ বলে ৮০ ও গ্রিণ ২৮ বলে ২০ রান করে অপরাজিত থাকেন।

ইংল্যান্ডের পক্ষে ডেভিড উইলি ২ ও ক্রিস জর্ডান ও লিয়াম ডউসন নেন ১টি করে উইকেট। সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেলো অজিরা। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ১৯ নভেম্বর সিডনিতে মাঠে নামবে এই দু'দল।

ইত্তেফাক/জেডএইচ