বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

খুলনায় স্ত্রীর মামলায় পুলিশ কর্মকর্তা কারাগারে

আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০২২, ১৯:৫৮

স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক ও হত্যা প্রচেষ্টা মামলায় খুলনা ও সোনাডাঙ্গা থানার সাবেক সহকারী পরিদর্শক (এসআই) সোবহান মোল্লাকে কারাগারে পাঠা করেছেন আদালত। 

বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) দুপুরে খুলনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক আব্দুস ছালাম খান তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সোবহান মোল্লা বর্তমানে কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশে কর্মরত রয়েছেন।

বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোমিনুল ইসলাম জানান, গত ৬ আগস্ট মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই পুলিশ পরিদর্শক লুৎফর রহমান আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। ১৩ সেপ্টেম্বর আদালত এস আই সোবহান মোল্লার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। এরপর তিনি উচ্চ আদালত থেকে ৬ সপ্তাহের জামিন নেন। গত বুধবার আদালতে তার আত্মসমর্পণ করার ধার্য দিন ছিলো। কিন্তু তিনি ঐদিন আদালতে উপস্থিত হতে পারেনি। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিনের আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

তিনি আরও বলেন, পুলিশ কর্মকর্তা প্রথম বিয়ের তথ্য গোপন রেখে ২০২০ সালের ১২ মে ফারজানা বিনতে ফাকের নামের এক কিশোরীকে ৩ লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করে বিয়ে করেন। তখন তিনি সোনাডাঙ্গা থানায় কর্মরত ছিলেন। বিয়ের পর থেকে দ্বিতীয় স্ত্রীকে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন ও একাধিকবার মারপিট করে হাসপতালে ভর্তি করেন। উপায় না পেয়ে ২০২১ সালের ১৫ ডিসেম্বর খুলনার নারী ও শিশু শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেন স্ত্রী ফারজানা বিনতে ফাকের।

ইত্তেফাক/পিও