রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বাংলাদেশ-মেক্সিকো দ্বিতীয় দ্বিপাক্ষিক আলোচনা অনুষ্ঠিত

আপডেট : ২১ নভেম্বর ২০২২, ১৯:৫৭

বাংলাদেশ-মেক্সিকোর মধ্যে দ্বিতীয় দ্বিপাক্ষিক আলোচনা সোমবার (২১ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হয়।  দ্বিপাক্ষিক এই বৈঠকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (আমেরিকাস উইং) নাঈম উদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়; বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, বাংলাদেশ রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল (বেপজা) এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। 

এছাড়াও মেক্সিকোতে নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর রাষ্ট্রদূতও মেক্সিকোতে বাংলাদেশ মিশনে কর্মরত কর্মকর্তাবৃন্দ এ সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হন। 

মেক্সিকো প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন সে দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এশিয়া-প্যাসিফিক উইং-এর মহা পরিচালক ফার্নান্দো গনজালেজ সেইফ ও নয়াদিল্লীতে অবস্থিত মেক্সিকোর দূতাবাসের রাজনৈতিক শাখার প্রধান গুলিমেরো সাভেজ কনেজো। 

বাংলাদেশ ও মেক্সিকোর মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী প্রথম দ্বিপাক্ষিক কনসালটেশন্সের বৈঠক গত বছরের ১৬ নভেম্বর ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হয়। মেক্সিকোর সঙ্গে বাংলাদেশের এটাই প্রথম স্বশরীরে অনুষ্ঠিত দ্বিপাক্ষিক আলোচনা।

ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে অনুষ্ঠিত এই সভায় দু’দেশের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিভিন্ন ইস্যু, যেমন, উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিগণের সফর আয়োজন, বাংলাদেশ-মেক্সিকো পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপ গঠন, ঢাকায় মেক্সিকোর দূতাবাস চালুকরণসহ আঞ্চলিক বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা হয়।
 
এছাড়া বাংলাদেশ ও মেক্সিকোতে পারস্পরিক বিনিয়োগ বৃদ্ধি, দু’দেশের বিনিয়োগ পরিস্থিতি, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল বিনিময়, Avoidance of Double Taxation বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষরের সম্ভাব্যতা নিয়ে আলোচনা হয়। 

বৈঠকে লিঙ্গ সমতা, পরিবেশ, কৃষি, প্রতিরক্ষা ও পর্যটন ক্ষেত্রে সহযোগিতা ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর, এয়ার সার্ভিস চুক্তি, বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এবং মেক্সিকোর National Autonomus University/ Secretariat of Public Education এর মধ্যে সরকারি বৃত্তি, ফেলোশিপ, প্রশিক্ষণ ও দু’দেশের সরকারি পর্যায়ে সমঝোতা স্বাক্ষর, দু’দেশের কূটনৈতিক প্রশিক্ষণ একাডেমির সমঝোতা স্মারক এবং কূটনৈতিক ও সরকারি পাসপোর্টধারীদের জন্য ভিসা অব্যাহতি চুক্তি বিষয়গুলো আলোচিত হয়। 

আগামী বছরের প্রথমার্ধে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মেক্সিকো সফরের আমন্ত্রণ, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের সফর ও ঢাকাতে ভিসা সেন্টার চালুকরণ বিষয়ে মেক্সিকো সক্রিয়ভাবে কাজ করছে বলে জানানো হয়।
 
মেক্সিকান প্রতিনিধি দলের প্রধান মহা পরিচালক ফার্নান্দো গনজালেজ সেইফ বিগত এক দশকে বাংলাদেশের অভাবনীয় অর্থনৈতিক উন্নয়ন, অত্যন্ত সফলভাবে কোভিড সংকট মোকাবেলা এবং বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত দশ লক্ষ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় ও মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য বর্তমান সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেন।


 
বৈঠক শেষে মেক্সিকান প্রতিনিধিদল পররাষ্ট্র সচিব (সিনিয়র সচিব) রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে একটি বৈঠক করেন। বৈঠকে দু’দেশের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। 

মেক্সিকান প্রতিনিধি দল পররাষ্ট্র সচিবের পক্ষ হতে আয়োজিত মধ্যাহ্নভোজে অংশগ্রহণ করে। পররাষ্ট্র সচিব (সিনিয়র সচিব) আগত মেক্সিকান প্রতিনিধি দলকে বাংলাদেশে আসার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। 

তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং বাংলাদেশের উন্নত বিনিয়োগের পরিবেশ সম্পর্কে প্রতিনিধিদলকে অবহিত করেন। সর্বশেষে তিনি দ’দেশের মধ্যে কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় করার প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। 

ইত্তেফাক/পিও