শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

‘পেলের ভক্ত হয়েছি বলেই ব্রাজিলের ভক্ত হয়েছি’

আপডেট : ২৪ নভেম্বর ২০২২, ১৩:৪২

আমাদের ছোটবেলায় আমরা বিশ্বকাপের এমন খবর পেতাম না। তখন টেলিভিশন কিংবা রেডিও ছিল। এরপর যখন বড় হয়েছি তখন পত্রিকা পড়তে অভ্যস্ত হই, তখন বিশ্বকাপের খবর পড়েছি। ওই খবর পড়তে পড়তেই আমরা পেলের ভক্ত হয়েছি। পেলের ভক্ত হয়েছি বলেই ব্রাজিলের ভক্ত হয়েছি। আর তখন থেকে এই ব্রাজিলে যে আটকে আছি, আটকেই আছি, আর নড়াচড়া হয়নি। আমি একদম রয়্যাল সাপোর্টার অব ব্রাজিল!

বরারবরই আমি ফুটবল খেলা দেখতে খুব এনজয় করি। খেলাটা দেখার চেষ্টা করি প্রায়ই। এখন পত্র-পত্রিকা, টেলিভিশনের খবরগুলোও দেখি। তাতে করে মনে হচ্ছে যে এবার বিশ্বকাপে বেশ ভালো একটা লড়াই হবে। এবারের দলগুলো কাউকে ছাড় দেবে না। দল হিসেবে একদিকে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা তো আছেই, অন্যদিকে ইংল্যান্ড-ফ্রান্স-জার্মানি। এর বাইরেও আরও অনেক দল আছে। সেই দলগুলোও শক্তিশালী। 

পেলে

সব মিলিয়ে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে। আমি হারলেও ব্রাজিল, জিতলেও ব্রাজিল। তবে আমার ব্রাজিল সমর্থক হলেও আমার ছেলেমেয়েরা আর্জেন্টিনার সমর্থক। ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখী হলে সেদিন দারুণ জমে ওঠে। আর্জেন্টিনার মেসির খেলা ভালো, দারুণ খেলে। আমার ছেলেমেয়েরা, ওরা পরের জেনারেশন, ওরা ম্যারাডোনাকে রিপ্রেজেন্ট করেছে, ওর খেলা দেখে বড় হয়েছে। প্রথম প্রথম টেলিভিশনে খেলা দেখানো তখন শুরু হয়েছে। তো ওরা সব আর্জেন্টিনার ভক্ত!

এ রকম সামনে একেকজনকে দেখে একেকজন একেক দলের সমর্থক হয়ে গেছে। আমরা একসঙ্গে খেলা দেখতে বসলে খুবই ঝগড়া-ঝাটি হয় এবং সেটা যদি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচ হয়, তবে তো সেটা আমাদের জন্য একসঙ্গে দেখা একদম নিরাপদ নয়! খেলার সময় আমরা একে অন্যের পরম শত্রু!

 লেখক: বিশিষ্ট অভিনেতা।

ইত্তেফাক/বিএএফ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন