রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পাসের হার কমলেও জিপিএ-৫ বেড়েছে সিলেট বোর্ডে

আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৬:৩২

সিলেট শিক্ষা বোর্ডে এবার পাসের হার ৭৮ দশমিক ৮২ শতাংশ। গত বছর পাসের হার ছিল ৯৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ। পাসের হার কমেছে ১৭ দশমিক ৯৬ শতাংশ।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে সিলেট শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক অরুণ চন্দ্র পাল আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল প্রকাশ করেন।

এদিকে, পসের হার কমলেও এ বোর্ডে বেড়েছে জিপিএ-৫। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে রেকর্ড ৭ হাজার ৫৬৫ জন শিক্ষার্থী। গত বছর সিলেটে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৪ হাজার ৮৩৪ জন পরীক্ষার্থী।

সিলেটে শিক্ষার্থীদের উল্লাস। ছবি: ইত্তেফাক

অধ্যাপক অরুণ চন্দ্র পাল জানান, চলতি বছর সিলেট শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ১ লাখ ১৬ হাজার ৪৯০ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। এদের মধ্যে ৯০ হাজার ৯৪৮ জন পাস করেছে। বোর্ডের অধীন ৯৩০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ১৫০টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেয়। এদের মধ্যে ২৭টি প্রতিষ্ঠানের শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছে। একজনও পাস করেনি এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা শূন্য। আগের বছরের চেয়ে এবারে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংখ্যা ২ হাজার ৭৩১ জন বেড়েছে।

সিলেট বোর্ডে ৪৯ হাজার ৮৭ জন ছেলে ও ৬৬ হাজার ৩০৪ জন মেয়ে পরীক্ষার্থী পাস করেছে। ছেলে ও মেয়েদের পাসের হার যথাক্রমে ৭৮ দশমিক ৭১ শতাংশ ও ৭৮ দশমিক ৯ শতাংশ।

বিজ্ঞান বিভাগে পাসের হার ৯৩ দশমিক ৫৭ শতাংশ। এই বিভাগে ২৩ হাজার ৩১৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২৩ হাজার ২৩০ জন পাস করেছে। এদের মধ্যে ৬ হাজার ৮৯৪ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। মানবিক বিভাগে পাসের হার ৭৩ দশমিক ৮ শতাংশ ও জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৮৯ জন। এই বিভাগে ৮৪ হাজার ২৭৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ৮৩ হাজার ৩১৫। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে পাসের হার ৮৭ দশমিক ৩৬ শতাংশ। এই বিভাগে ৮ হাজার ৮৯৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ৭ হাজার ৭২৮ জন। ২৮২ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে।

অপরদিকে, সিলেট শিক্ষা বোর্ডের অধীন চার জেলার মধ্যে সবচেয়ে ভালো করেছে সিলেট জেলার শিক্ষার্থীরা। এই জেলায় পাসের হার ৮১ দশমিক ৯৫ শতাংশ। এছাড়া সুনামগঞ্জে ৭৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ, হবিগঞ্জে ৭৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ ও মৌলভীবাজারে ৭৩ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে শতভাগ সাফল্য:

এবারের এসএসসি পরীক্ষায় জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ (জেসিপিএসসি) সিলেট বিভাগে গত বছরের ন্যায় এবারও সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখেছে। বাংলা মাধ্যমে ২২৬ ও ইংরেজি মাধ্যমে ৬২ জনসহ মোট ২৮৮ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে শতভাগ পাস করে। তার মধ্যে ২৬১ জন জিপিএ-৫ ও ২৭ জন 'A' গ্রেড অর্জন করে।

দুপুরে প্রতিষ্ঠানের অডিটোরিয়ামের সামনে উৎসবমুখর পরিবেশে ফলাফল প্রকাশ করেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. আব্দুল হান্নান। এ সময় মাধ্যমিক শাখার কোঅর্ডিনেটর সিনিয়র শিক্ষক আইনুল হক, অন্যান্য শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। প্রতিষ্ঠানের শতভাগ সাফল্য ও শিক্ষার্থীদের কাঙ্খিত ফলাফল প্রাপ্তিতে সবার মাঝেই ছিল বাধভাঙা উচ্ছ্বাস।

ইত্তেফাক/এসকে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন