শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

জনসচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে ‘নিউক্লিয়ার বাস’-এর যাত্রা শুরু

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০৭

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ে সাধারণ জনগনের মাঝে আগ্রহ সৃষ্টি, নিরাপদ ও পরিবেশ বান্ধব পরমাণু প্রযুক্তি এবং মানব জীবনে এর বহুমুখী ব্যাবহার সম্পর্কে জনসচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে ঢাকা থেকে যাত্রা শুরু করেছে ‘নিউক্লিয়ার বাস’ নামের একটি বিশেষ বাস। বিশ্ব পরমাণু দিবস উদযাপন এবং বিজ্ঞান উৎসবকে কেন্দ্র করে ৩০ নভেম্বর থেকে এই বিশেষ কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়েছে। এবারে দ্বিতীয় বারের মতো নিউক্লিয়ার বাস ট্যুর অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে রসাটমের এবং রূপপুর পারমাণবিকের গণমাধ্যম জানিয়েছে ।

জানা গেছে, আগামী এক সপ্তাহ বিশেষভাবে ব্র্যান্ডিংকৃত বাসটি উত্তর বঙ্গের বিভিন্ন জেলা পরিভ্রমণ করবে। বাসে ভ্রমণ করছেন ঢাকাস্থ পরমাণু শক্তি তথ্যকেন্দ্র, ঈশ্বরদীর পারমাণবিক তথ্যকেন্দ্র, এবং বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের প্রতিনিধিত্বকারী কয়েক জন তরুণ প্রকৌশলী এবং পেশাদার। ভ্রমণকালে তারা বিভিন্ন জেলায় রাস্তার নিকটবর্তী এলাকায় সাধারণ জনগনের জন্য ১৩টিরও অধিক ইভেন্ট আয়োজন করবেন।

এসময় তারা রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, নিরাপদ ও পরিবেশবান্ধব বিদ্যুৎ উৎপাদনে পরমাণু প্রযুক্তির ব্যাবহার, এবং এর বিভিন্ন সামাজিক সুবিধা সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে অবহিত করবেন। এসময় তারা বিভিন্ন প্রশ্নেরও জবাব দেবেন। ইভেন্টগুলোর বিশেষ আকর্ষণ থাকবে বিজ্ঞানভিত্তিক কুইজ, এবং গেইমস। বিজয়ী এবং স্বক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণকারীদের জন্য থাকছে আকর্ষণীয় পুরষ্কার। এছাড়াও সাধারণ মানুষের মধ্যে বিনামূল্যে তথ্য সমৃদ্ধ লিফলেট, বই ও সুভ্যেনির বিতরণ করা হবে।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন এবং রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পরমাণু শক্তি কর্পোরেশন রসাটমের সার্বিক সহায়তায় নিউক্লিয়ার বাস ট্যুরের আয়োজন করা হয়েছে। আগামী ৬ ডিসেম্বর ঢাকায় এই ট্যুরের সমাপ্তি ঘটবে।

রুশ সরকারের আর্থিক ও প্রযুক্তিগত সহায়তায় ঈশ্বরদীর রূপপুরে নির্মিত হচ্ছে দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র। কেন্দ্রটির দু’টি ইউনিটে স্থাপিত হবে ৩+ প্রজন্মের রুশ ভিভিইআর-১২০০ রিয়্যাক্টর, যেগুলো সকল আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা চাহিদা পূরণে সক্ষম। 

ইত্তেফাক/ইআ