বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

জার্মানির সামনে শেষ সুযোগ, অপেক্ষায় কোস্টারিকাও

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৫:১০

চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন, অথচ বিশ্বকাপের গত আসর থেকে তাদের দুর্দশা যেন কাটছেই না। এবার বিশ্বকাপেও নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচ শেষে মাত্র ১ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের তলানিতে জার্মানরা।

জার্মানদের সামনে এখন টানা দুই আসরে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেওয়ার শঙ্কা। নইজেদের বাঁচা-মরার লড়াইয়ে বাংলাদেশ সময় আজ দিবাগত রাত ১টায় আল-বায়াত স্টেডিয়ামে কোস্টারিকার মুখোমুখি হবে জার্মানি। 

হ্যান্সি ফ্লিকের জার্মানি স্পেনের বিরুদ্ধে ১-১ গোলে ড্র করে কোনমতে টুর্নামেন্টে টিকে রয়েছে। এর আগে জাপানের কাছে প্রথম ম্যাচে ১-০ গোলে পরাজিত হয়ে নিশ্চিত তিন পয়েন্ট হারিয়েছিল লস টিকোসরা। 

অন্যদিকে, স্পেনের কাছে সাত গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে টুর্নামেন্ট শুর করা কোস্টারিকা দ্বিতীয় ম্যাচে জাপানকে হারিয়ে টুর্নামেন্টে ফিরে এসেছে। ৮১ মিনিটে কেইশার ফুলারের গোলে এশিয়ান জায়ান্টদের বিরুদ্ধে কোস্টারিকানদের জয় নিশ্চিত হয়। জাপানের গোলরক্ষক শুইচি গোন্ডা চেষ্টা করেও তা আটকাতে পারেনি। এখন কোস্টারিকার ভাগ্য কালকের ম্যাচের উপর নির্ভর করছে।

জাপানের সঙ্গে সমান তিন পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা কোস্টারিকা শীর্ষে থাকা স্পেনের তুলনায় মাত্র এক পয়েন্ট পিছিয়ে রয়েছে। জার্মানির বিপক্ষে জয়ী হলে ইতিহাসের তৃতীয় বারের মত নক আউট পর্ব নিশ্চিত করবে কনকাকাফ অঞ্চলের দেশটি। তবে স্পেন যদি জাপানকে হারাতে পারে তবে লুইস ফার্নান্দো সুয়ারেজের দলের ড্র করলেই চলবে। কিন্তু পরাজিত হলে ২০১৪ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা দলটি টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যাবে। ১৯৯০ সালেও কোস্টারিকা শেষ ১৬ থেকে বিদায় নিয়েছিল।

আট বছর আগে লস টিকোসরা ইতালিকে ১-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের ঐতিহাসিক জয় নিশ্চিত করেছিল। সেই দলটি এবার শেষ ম্যাচে আরো এক ফুটবল জায়ান্টেদের সামনে দাঁড়িয়ে, যাদের হারাতে পারলে আবারো নক আউট পর্বে যাওয়া নিশ্চিত হবে।

এদিকে, প্রথম ম্যাচে এশিয়ান জায়ান্ট জাপানের কাছে বিস্ময়করভাবে হেরে গিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে স্পেনের মোকবেলা করেছে জার্মানি। ২০১৪ বিশ্বকাপজয়ীরা ম্যাচটিতে ১-১ গোলে ড্র করে কোনমতে নিজেদের স্বপ্ন টিকিয়ে রেখেছে। ৮৩ মিনিটে ওয়ার্ডার ব্রেমেনের তারকা নিকোলাস ফুলক্রুগের গোলে জার্মানির ড্র নিশ্চিত হয়। তার আগে অ্যান্টোনিও রুডিগারের একটি গোল অফসাইডের কারনে বাতিল হয়ে গিয়েছিল।

নক-আউট পর্বে যেতে হলে কোস্টারিকানদের বিরুদ্ধে জয় ভিন্ন অন্য কোন পথ খোলা নেই জার্মানির। ড্র করলেও এবারের আসর থেকে বিদায় নিতে হবে ফ্লিকের দলকে। অন্যদিকে স্পেন ও জাপান যদি ড্র করে তবে জার্মানির অন্তত দুই গোলের ব্যবধানে জিততে হবে।

আর হাজিমে মোরিইয়াসুর দল যদি লা রোজাদের সাথে জয়ী হয়ে আরেকটি অঘটনের জন্ম দেয়া তবে স্পেনকে বিদায় করতে হলে ফ্লিকের দলকে অন্তত পাঁচ গোলের ব্যবধানে কোস্টারিকাকে হারাতে হবে। 

সব ধরনের টুর্নামেন্টে ১০ ম্যাচে মাত্র দুটি জয় পাওয়ায় গুরুত্বপূর্ণ লড়াইয়ের আগে জার্মানিকে মোটেই আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে না। যেখানে ড্র কিংবা পরাজয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মত গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিবে চার বারের চ্যাম্পিয়নরা। এটা তাদের ফুটবলের ইতিহাসে প্রথম। একইসঙ্গে বিশ্বকাপের প্রথম তিন ম্যাচে জয়বিহীন জার্মান ম্যানেজার হিসেবে ইতিহার রচনা করবেন ফ্লিক। এর আগে বিশ্বকাপে একবারই কোস্টারিকাকে মোকাবেলা করেছে জার্মাসহ। ২০০৬ সালে নিজেদের মাটির বিশ্বকাপের ম্যাচটিতে ৪-২ গোলে জয়ী হয়েছিল জার্মানরা।

ইত্তেফাক/এসএস

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন