শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ১৩ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বিদেশি প্রতিনিধিদের ওপর নতুন আইন রাশিয়ার 

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ২০:৪৪

রাশিয়ায় বিদেশি প্রতিনিধিদের ওপর নতুন একটি বর্ধিত আইন কার্যকর হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) এই আইন কার্যকর করা হয়। এই আইনকে রাশিয়ায় জনগণের বাকস্বাধীনতা এবং রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিনের বিরোধিতার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার ইঙ্গিত হিসেবে বর্ণনা করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সিএনএন।

এটি পশ্চিমা উদারনৈতিক মূল্যবোধ বিনাশ করার একটি সিদ্ধান্ত। রাশিয়ার পার্লামেন্ট পুতিনের কাছে এলজিবিটি ইস্যুগুলোকে ‘প্রচারণা’ বলার ওপর নিষেধাজ্ঞা সম্প্রসারিত করার একটি বিলও পাঠিয়েছে।

রাষ্ট্রপতি পদে পুতিনের প্রত্যাবর্তনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের পরে বিদেশি প্রতিনিধি ২০১২ আইন পাস হয়। বিদেশি প্রতিনিধি হিসেবে নিবন্ধন করার জন্য রাজনৈতিক কার্যকলাপে জড়িত এবং বিদেশ থেকে তহবিল গ্রহণকারী সংস্থাগুলোকে প্রয়োজন। কারণ বিদেশি প্রতিনিধিরা কঠোর নিয়ম ও বিধিনিষেধ মেনে চলে।  

আইনটি ২০১২ থেকে ধীরে ধীরে উন্নত করা হয়েছে। গত এক দশকে এই আইনটি রাশিয়ার সুশীল সমাজের শ্বাসরুদ্ধ পরিস্থির ওপর মেরুদণ্ড গঠন করেছে। বৃহস্পতিবার থেকে এই আইনটি শুধু বিদেশ থেকে তহবিল গ্রহণকারী ব্যক্তি বা সংস্থাগুলোকেই অন্তর্ভুক্ত করেনি, যারা সমর্থন পেয়েছেন বা বিদেশি প্রভাবের অধীনে রয়েছেন তাদের ক্ষেত্রেও আইনটি প্রসারিত হয়েছে।

ছবি: সিএনএন

লিথুয়ানিয়ায় বসবাসকারী রাশিয়ান ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক কনস্ট্যান্টিন ভন এগারট বলেছেন, ঠিক এই বিষয়টিই। তিনি এই ধরনের আইনকে পুতিনের নিপীড়নমূলক ব্যবস্থা বলেছেন। এই আইন বেছে বেছে প্রয়োগ করা হয়েছে, যাতে ভয় দেখানো এবং পক্ষাঘাতগ্রস্ত করা যায়।  

তিনি বলেন, ‘একবার আইন দেশজুড়ে প্রয়োগ করা হলে আপনি মোটামুটি দ্রুত চিন্তা করতে পারবেন কীভাবে এই পদ্ধতিকে মোকাবিলা করতে হবে। আইনগুলো এলোমেলো উপায়ে বা সহজেই প্রয়োগ করা হলে আপনি বুঝতে পারবেন না।’

আরেক নির্বাসিত রুশ সাংবাদিক আন্দ্রে সোলদাটভ বলেন, ‘এটি একটি কঠোর ব্যবস্থার অংশ যা ইউক্রেনে রাশিয়ার পরাজয়ের সঙ্গে সরাসরি সম্পর্কযুক্ত। আন্দ্রে রাশিয়ান নিরাপত্তা সেবা সম্পর্কে তার অনুসন্ধানী কাজের জন্য পরিচিত। আপনি সত্যিই ভালো ব্যাখ্যা দিতে পারবেন না কেনো খেরসনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল। তিনি বলেন, ‘ভয়ের একটি উপাদান তৈরি করার জন্যই এটি করা হয়েছিল।’ 

ইত্তেফাক/কে/এএএম