রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধীদের হাতে ২০ হাজার সেনা নিহত

আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:৩০

মিয়ানমারের ক্ষমতা দখলকারী জান্তা বাহিনীর সঙ্গে লড়াইয়ে অন্তত ২ হাজার প্রতিরোধ যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। একই সময়ে তাদের হাতে ২০ হাজার সেনা নিহতের দাবি করেছেন জান্তাবিরোধীরা। বৃহস্পতিবারে এক সাক্ষাৎকারে জাতীয় ঐক্য সরকারের (এনইউজি) ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডুয়া লাশি লা এই দাবি করেন। পাশাপাশি তিনি মিত্রদের কাছে সামরিক সহায়তার আহ্বান জানিয়েছেন। রয়টার্স

ডুয়া লাশি লা বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে তাদের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে আরও বেশি সোচ্চার হতে বহির্বিশ্বের সহায়তা দরকার। কেননা গণতন্ত্রবিরোধী এই সরকারকে হটাতে তাদের এছাড়া আর কোনো পথ খোলা নেই। এজন্য তিনি বিশ্বের কল্যাণকামী রাষ্ট্রগুলোকে তাদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে যদি বিমান বিধ্বংসী অস্ত্র থাকত তাহলে আগামী ছয় মাসের মধ্যে সব হিসাবনিকাশ ওলটপালট করে দিতে পারতাম। আমাদের তাদের পরাজিত করা কোনো ব্যাপারই ছিল না। তাই এই মুহূর্তে আমাদের বাহিরের দেশের সামরিক সহায়তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।’ এ সময় তিনি বলেন, ‘ইউক্রেন যেভাবে বিশ্বের কাছ থেকে তথা যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের কাছ থেকে সামরিক সহায়তা পাচ্ছে সেভাবে যদি আমরা পেতাম, তাহলে আমাদের জয় খুব দ্রুততম সময়ে হয়ে যেত।’ তিনি আরও বলেন, পশ্চিমা বিশ্ব তাদের ব্যাপারে অনেক ইতিবাচক হলেও সময় এসেছে তাদের অবস্থানকে আরও স্পষ্ট ও বাস্তবমুখী করা। কেননা, এই মুহূর্তে আমাদের দরকার দ্রুত সামরিক সহায়তা। আর এটা ঢিমেতালে নয়, বরং ত্বরিতগতিতে দরকার। কেননা দিন যতই বাড়বে মৃত্যুর মিছিল ততই বাড়বে। মিয়ানমার জান্তা সরকার আরও বেশি বেপরোয়া হয়ে উঠবে, আরও বেশি দমননীতি ও নির্যাতন চালাতে উন্মত্ত হয়ে উঠবে।

ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চি এবং অন্যান্য প্রশাসনের সমন্বয়ে গঠিত জাতীয় ঐক্য সরকারের (এনইউজি) ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডুয়া লাশি লা মিয়ানমারের অজ্ঞাত স্থান থেকে রয়টার্স নেক্সট সম্মেলনে কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘আমি কখন আমার জীবন হারাব জানি না। সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছার ওপর নির্ভর করছে। দেশের জন্য যে কোনো কিছু ত্যাগ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আমি। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে অং সান সু চির সরকারকে জোরপূর্বক উৎখাত করে সামরিক বাহিনী। এর পর থেকে দেশটির ক্ষমতা তাদের হাতে। সেই সময় থেকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ মিয়ানমারে চরম অস্থিরতা বিরাজ করছে। জান্তা সরকার একের পর এক মানুষ হত্যা করে যাচ্ছে। এসময় তিনি বলেন, সাম্প্রতিক ঐ সংঘর্ষে তাদের যোদ্ধারা নিহত হলেও জান্তা সরকারেরও হাজার হাজার সেনা নিহত হয়েছে। তবে বার্তা সংস্থা রয়টার্স নিহতের এই সংখ্যা স্বাধীনভাবে যাচাই করতে পারেনি।

গত মাসে, দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় সরকার প্রধানরা একটি শান্তি পরিকল্পনায় অগ্রগতি বা বৈঠকে বাধা দেওয়ার অভিযোগে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে সতর্কতা জারি করে।

ইত্তেফাক/এমএএম