বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

সংবিধান বাতিলের জন্য ট্রাম্পের আহ্বানের নিন্দা করেছে হোয়াইট হাউস 

আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৫৩

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০২০ সালের নির্বাচনের ফলাফল উল্টে তাকে ক্ষমতায় পুনরুদ্ধার করতে দেশের সংবিধানের 'সমাপ্তির' আহ্বান জানিয়েছেন। তার এ আহ্বানের নিন্দা জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ। আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ  তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শনিবার (৩ ডিসেম্বর) ট্রাম্প তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ট্রুথ সোশ্যালে এ আহ্বান জানান। তিনি ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তার বিজয়ের মিথ্যা দাবি করেছিলেন। ট্রাম্প আরও অভিযোগ করেছেন, বড় প্রযুক্তি সংস্থাগুলো তার বিরুদ্ধে ডেমোক্র্যাটদের সঙ্গে যোগসাজশ করেছে।

হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র অ্যান্ড্রু বেটস ট্রাম্পের নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, 'সংবিধানকে আক্রমণ করে তার মন্তব্য আমাদের জাতির আত্মার প্রতি আঘাত।' তিনি বলেন, ট্রাম্পের মন্তব্যের জনসমক্ষে নিন্দা হওয়া উচিত।

হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র অ্যান্ড্রু বেটস ট্রাম্পের নিন্দা জানিয়েছেন

বিবিসি জানায়, ট্রুথ সোশ্যাল এর একটি পোস্টে ট্রাম্প ২০২০ সালের নির্বাচনে ব্যাপক জালিয়াতি ও কারচুপির অস্পষ্ট অভিযোগের কথা উল্লেখ করেছেন। তিনি ফলাফল বাতিল করে সঠিক বিজয়ীর নাম ঘোষণা বা নতুন নির্বাচন করার কথা বলেন। তাকে অবিলম্বে ক্ষমতায় ফিরতে দেওয়া উচিত কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন ট্রাম্প।

তিনি লেখেন, 'এ ধরনের ব্যাপক প্রতারণার প্রেক্ষাপটে সব বিধি-বিধান ও আইনের বিধান, এমনকি সংবিধানে যেগুলো আছে সেগুলোও বাতিল করা উচিত। আমাদের মহান প্রতিষ্ঠাতারা মিথ্যা, জালিয়াতিপূর্ণ নির্বাচন চাননি এবং মেনে নেবেন না।'

ট্রুথ সোশ্যাল এর একটি পোস্টে ট্রাম্প ২০২০ সালের নির্বাচনে ব্যাপক জালিয়াতি ও কারচুপির অস্পষ্ট অভিযোগের কথা উল্লেখ করেছেন।

এর প্রতিক্রিয়ায় হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র অ্যান্ড্রু বেটস বলেন, 'মার্কিন সংবিধান একটি পবিত্র দলিল, যা আমাদের মহান জাতির ২০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে বিদ্যমান আইনের শাসন ও স্বাধীনতার গ্যারান্টি দেয়। সংবিধান আমেরিকান জনগণকে দলের ঊর্ধ্বে একত্রিত করে এবং নির্বাচিত নেতারা এটিকে সমুন্নত রাখার শপথ নেন। সংবিধান হলো সেই আমেরিকানদের চূড়ান্ত স্মৃতিস্তম্ভ যারা অত্যাচারী শাসনকে পরাস্ত করতে তাদের জীবন দিয়েছিল, যেগুলো ক্ষমতার অপব্যবহার করে এবং মানুষকে তাদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করে।'

ট্রাম্প গত মাসে ঘোষণা করেছিলেন, তিনি ২০২৪ সালে আবার প্রেসিডেন্ট পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। তিনি রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়নও পাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত নভেম্বরে মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টি আশানুরূপ করতে পারেনি।

কিন্তু গত নভেম্বরে মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টি আশানুরূপ করতে পারেনি। তাই ট্রাম্পকে মনোনয়ন দেওয়া ঠিক হবে কি না তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন তার কয়েকজন সহযোগী।

ইত্তেফাক/ডিএস