রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

প্রশাসনের অনৈতিক হস্তক্ষেপে নৌকার পরাজয়, অভিযোগ প্রার্থীর

আপডেট : ৩১ ডিসেম্বর ২০২২, ২২:৩৯

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলদের অনৈতিক হস্তক্ষেপ ও ভোটগ্রহণে কালক্ষেপণ হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্বাচনে উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি চশমা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার হোসেনের নিকট নৌকার প্রার্থী মামুনুর রশিদ ১৭৩ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন।

শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার ইলিয়টগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী মামুনুর রশিদ তার নির্বাচনি কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন। গত বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) এ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। 

ওই ইউনিয়নের ইলিয়টগঞ্জ রাজেন্দ্র বিশ্বনাথ (রাবি) উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রের মোবাইল টিমের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাপস শীল এবং দাউদকান্দির গৌরিপুর সরকারি কলেজের প্রভাষক কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার রমজান আলীর বিরুদ্ধে তিনি এ অভিযোগ করা হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে নৌকার প্রার্থী মামুনুর রশিদ আরও বলেন, রাজেন্দ্র বিশ্বনাথ (রাবি) উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার রমজান আলীসহ কর্তব্যরত ম্যাজিস্ট্রেট চশমা প্রতীকের প্রার্থীর দ্বারা প্রভাবিত হয়ে ভীতিকর পরিবেশের সৃষ্টিসহ তাকে (নৌকার প্রার্থী) ভোট কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়। কেন্দ্রে বারবার ইভিএমে যান্ত্রিক সমস্যার কথা বলে ভোটগ্রহণ বিলম্বিত করা হয়। এতে নৌকার বিপুলসংখ্যক ভোটার ভোট দিতে পারেনি। এখানে প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলদের নির্লজ্জ পক্ষপাতিত্বের কারণে তার নিশ্চিত বিজয়কে ছিনিয়ে নিয়ে বিএনপি নেতাকে জয়ী করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। ওই কেন্দ্রে তিনি পুনর্নিবাচনসহ নৌকার পরাজয়ে নাটকের ভূমিকায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। 

এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রার্থীর প্রধান এজেন্ট ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক বিল্লালুর রহমান দোলন, কুমিল্লা উত্তর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিরিন সুলতানাসহ অনেকে। 

অভিযোগের বিষয়ে প্রিজাইডিং অফিসার রমজান আলী জানান, নির্বাচন কমিশনের বিধিবিধান অনুযায়ী সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এক্ষেত্রে ওই প্রার্থীর অভিযোগ সঠিক নয়। চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাপস শীল ছুটিতে থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। 

কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম জানান, নির্বাচন নিয়ে কোনো প্রার্থীর অভিযোগ থাকলে নির্বাচন কমিশন-ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ করতে পারেন।

ইত্তেফাক/পিও