মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ধামরাইয়ে প্রবাসীর ফসলি জমি দখলের অভিযোগ

আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০২৩, ২২:২১

ধামরাই উপজেলার রাজাপুর এলাকার সৌদি প্রবাসী শাহ আমিনুল ইসলামের ফসলি জমি জোরপূর্বক দখলের পায়তারার অভিযোগ উঠেছে এ প্রভাবশালী ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় বাঁধা দিলে প্রভাবশালী ব্যক্তির লোকজন জমির মালিক ও স্বজনদের মারধোর ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এ ব্যাপারে জমির মালিক প্রবাসী শাহ আমিনুল ইসলামের পক্ষে তার ভাই শাহ আব্দুল আলীম ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ধামরাই থানাসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগ দিয়েছেন। 

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ধামরাই উপজেলার রাজাপুর পূর্বপাড়া এলাকার সৌদি প্রবাসী শাহ আমিনুল ইসলামের ৪১ শতাংশ জমি রয়েছে। জমির চারপাশে বেড়া দিয়ে সেখানে মৌসুমি সবজি চাষাবাদ করে আসছেন তার ছোট ভাই শাহ আব্দুল আলীম। কিন্তু ওই এলাকার প্রভাবশালী আব্দুল আলীম খান সেলিম উক্ত জমি অবৈধভাবে জবর দখল করার পায়তারা করছেন। এবং পরিবারের লোকজনদেরকে নানা রকম ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে আসছে। 

জমির পশ্চিম ও পূর্ব পাশে অভিযুক্ত ব্যক্তির জায়গা থাকার ফলে জমির পাশে নিয়ম বহির্ভূতভাবে গভীর পুকুর খনন করেছেন। এতে শাহ আমিনুল ইসলামের জমির মাটি ভেঙে জমি ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়। জমির ভেতরে অনধিকার প্রবেশ করে সাইনবোর্ড স্থাপন করে।
 
এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে কিছুদিন পূর্বে আব্দুল আলীম খান সেলিমের নির্দেশে শফি মল্লিক, খন্দকার মাহবুব, সাইফুল খান, তৈয়ব খান, লাভলুসহ অজ্ঞাতনামা ৫-৭ জন সন্ত্রাসী শাহ আব্দুল আলীম ও তার বড় ভাই শাহ মমিনুল ইসলামকে মারধর করে ও হত্যার হুমকি দেয়। পরে আশেপাশের লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে। 

এর আগে ধামরাইয়ের সহকারী কমিশনার (ভূমি)’র নিকট প্রেরিত অপর একটি অভিযোগ জমির মালিক শাহ আমিনুল ইসলাম উল্লেখ করেন, জোরপূর্বক তার জমির ফসল নষ্ট করে জমির উপর দিয়ে ট্রাক দিয়ে মাটি আনা নেওয়া করছে অভিযুক্তরা। এতে তিনি আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রন্ত হচ্ছে। এবং মৌসুমি সবজি হিসেবে রোপন করা অধিকাংশ টমেটো গাছ নষ্ট হয়েছে। তাই তিনি অভিযোগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট অবিলম্বে তার জমির অবৈধ দখল পায়তারা বন্ধ এবং হামলাকারীদের বিচারের দাবি জানান। 

অভিযোগের বিষয়ে জানতে আব্দুল আলীম খান সেলিমের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। 

ইত্তেফাক/পিও