শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মির্জাপুরে অবৈধ কয়লা তৈরির ১৩ চুল্লি ধ্বংস

আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫:১২

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে অভিযান চালিয়ে সরকারি বনাঞ্চলের আশপাশে অবৈধভাবে কয়লা তৈরির ১৩টি চুল্লি ধ্বংস করেছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলার মহিষপাথান এবং খালপাড় এলাকায় শনিবার(২১ জানুয়ারি) চুল্লিগুলো ভেঙে গুড়িয়ে দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আমিনুল ইসলাম বুলবুল।

তিনি বলেন, অভিযানে চুল্লি ধ্বংসসহ হাবিবুর রহমান নামে এক ব্যবসায়ীকে আটক করে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, বনাঞ্চলের ভেতরে ও আশপাশে অবৈধভাবে কয়লার চুল্লিতে কাঠ পুড়িয়ে কয়লা তৈরির কোনো সুযোগ নেই। যখনই খবর পাওয়া যাচ্ছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে কয়লা তৈরির অবৈধ চুল্লি ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

মির্জাপুর উপজেলা বনবিভাগ সুত্র জানায়, মির্জাপুর উপজেলায় প্রায় ১৫ হাজার ৮০০শ হেক্টর সরকারি বন ভূমি রয়েছে। বিশাল এই বন ভূমিতে গজারি, গর্জন, সেগুন, আকাশমনি, পিকরাশিসহ বিভিন্ন প্রজাতির মূল্যবান গাছ রয়েছে।

এ ব্যাপারে বন বিভাগ মির্জাপুর রেঞ্জ অফিসের রেঞ্জ অফিসার মো. আশরাফুল আলম বলেন, টাঙ্গাইলের বিভাগীয় বন সংরক্ষক এবং সহকারী বন রক্ষক মহোদয়ের নির্দেশনায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের সহযোগিতায় গায়রাবেতিল, নয়াপাড়া, বাঁশতৈল, বংশীনগর, আজগানা, কুড়িপাড়া, পাথরঘাটা, তরফপুর ও খাটিয়ারহাটসহ বিভিন্ন এলাকায় ইতোমধ্যে অভিযান চালিয়ে অবৈধ বেশ কিছু কয়লার চুল্লি ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

বন রক্ষার জন্য তাদের এ অভিযান পরিচালনার সময় বনবিভাগ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হাফিজুর রহমান, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় অভিযান চলমান থাকবে।

ইত্তেফাক/আরএজে