বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অনন্য দৃষ্টান্ত উপস্থাপন করলেন জেমস

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:৪৪

নগরবাউল জেমসকে বলা হয় নিজের ঘোরে থাকা এক ভাবুক রকস্টার। গোটাজীবন শুধু গান নিয়েই নিবিষ্ট থেকেছেন। তবে শিল্পীদের গানের মূল শক্তি থাকে তার গানের লিরিকে। আজকের নগরবাউলের বিশেষত্ব তৈরিতে তাই গীতিকবিদের সেই ভিন্নধর্মী লিরিকই প্রাধান্য পেয়েছে।

তবে নগরবাউল জেমস তা যে বিশ্বাস করেন বা সেই সম্পর্কের প্রতি শ্রদ্ধা রাখেন, তারই অনবদ্য উদাহরণ রাখলেন সহকর্মী গীতিকার বিশু শিকদারের মৃত্যুতে। প্রিয় গীতিকবির মৃত্যুর পর পরিবারের সন্তানদের লেখাপড়ার দায়িত্ব নিলেন তিনি। এর আগে বাংলাদেশের শিল্পীদের ভেতরে এমন বিরল উদাহরণ তৈরির ঘটনা নেই বললেই চলে।

গত ২১ জানুয়ারি পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন গীতিকবি বিশু শিকদার। নড়াইলের লোহাগড়ায় নিজ বাসাতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। নগর বাউল জেমসের কণ্ঠে শ্রোতাদের হূদয় উজাড় করা, কালের সীমানা জয় করা বহু গান এসেছে এই গুণী মানুষটির কলম থেকে। তাই স্বাভাবিকভাবেই বিশুর মৃত্যুতে বিষাদের বড় ধাক্কা এসেছে জেমসের মনে। শোক প্রকাশ করে অন্তর্জালে পোস্ট দিয়েছেন। খোঁজ নিয়েছেন মুঠোফোনে। তবে বিষয়টি তিনি সেখানেই আটকে রাখেননি। তিনি সেদিনই জানিয়েছিলেন, শিগগিরই বিশুর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছেন।

সেই কথা রাখলেন জেমস। ঢাকা থেকে ছুটে গেলেন লোহাগড়ার ধোপাদাহ গ্রামে। দেখা করলেন বিশুর পরিবারের সঙ্গে। এমনকি বাবা হারানো বিশুর দুই কন্যা সুকন্যা ও জিমের সার্বিক দায়িত্ব নিয়েছেন জেমস। তাদের পড়াশোনা, থাকা-খাওয়ার সব ব্যয় বহন করবেন তিনি।

বিশু শিকদার গীতিকবি হিসেবে মূলত জেমসের সঙ্গেই কাজ করতেন। তারা দু’জন মিলে বেশকিছু শ্রোতাপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন। এই তালিকায় আছে ‘দুষ্টু ছেলের দল’, ‘বিজলী’, ‘যদি এই শীতে’, ‘আমি তোমাদেরই লোক’, ‘সেলাই দিদিমনি’, ‘অবশেষে জেনেছি’, ‘তুফান’ প্রভৃতি। এমনকি একযুগ পর গত বছর জেমস যে নতুন গানটি (আই লাভ ইউ) প্রকাশ করেছেন, সেটিও যৌথভাবে বিশুর লেখা।

উল্লেখ্য, ২১ জানুয়ারি বিশু শিকদারের রচিত গানের সূত্র ধরেই তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন জেমস। ফেসবুকে তিনি লিখেছিলেন, ‘যদি এই শীতে আমি মরে যাই/ মনে রেখ আগামী শীতে/ নতুন করে জন্ম নেবো/ হয়তো ফুল হয়ে/ কোনও পথের ধারে/ হিমেল হাওয়া/ চেতনার পাশ দিয়ে...। আমাদের সবার প্রিয় গীতিকার ও লেখক বিশু শিকদার আর আমাদের মাঝে নেই। বিকেল ৫ ঘটিকায় (২১ জানুয়ারি) হূদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন। সবাই ওনার আত্মার মাগফিরাত এর জন্য দোয়া করবেন।’

ইত্তেফাক/এসকে