বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

বিএনপি পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসার দিবাস্বপ্ন দেখছে: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী

আপডেট : ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ২১:২৬

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, ‘জিয়াউর রহমান বন্দুকের নলের মুখে পেছনের দরজা দিয়ে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছিলেন। বিচারপতি সায়েমকে বন্দুকের নল ঠেকিয়ে নিজেকে রাষ্ট্রপতি হিসেবে ঘোষণা করতে বাধ্য করেন। নিজের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য জিয়া ‘হ্যাঁ’  ‘না’ ভোট করেন। সেই নির্বাচনে জিয়া একাই প্রার্থী ছিলেন। নিজেই বিচারকদের আদালতের রায় লিখে দিতেন। অনেক মুক্তিযোদ্ধা সেনা কর্মকর্তাকে ফাঁসি দিয়েছেন। দেশে হত্যা-গুম ও খুনের রাজনীতি চালু করেন। বঙ্গবন্ধুদের খুনিদের সাক্ষাৎকারই প্রমাণ করে জিয়া বঙ্গবন্ধু হত্যার মাস্টারমাইন্ড। খালেদা জিয়াও একই কায়দায় ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছিলেন। আওয়ামী লীগের আন্দোলনের কারণেই অল্প কয়েকদিনের মাথায় খালেদা পদত্যাগ করতে বাধ্য হন। ২০০১ সালের পর খালেদা জিয়া হাজার হাজার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীকে হত্যা করেন। তারা আবারও পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় হাওয়া ভবন খুলতে চায়। সেই দিবাস্বপ্ন আর কোনদিনই পূরণ হবে না।’

শনিবার সকালে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার রাজনগরে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এনামুল হক শামীম বলেন, ‘গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পথে বিএনপি আবারও বিঘ্ন সৃষ্টি করতে নতুন নতুন কৌশলে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। দেশের চলমান স্থিতিশীলতা বিনষ্টের জন্য তারা যতই চেষ্টা করুক, কখনও সফল হবে না। বিএনপি নির্বাচন, আন্দোলন ও রাজপথে ব্যর্থ হলেও ক্ষমতায় থাকতে দেশের অর্থপাচার এবং লুটপাটে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান হয়েছিল। বিএনপি নিজেরা আন্দোলন করতে না পেরে অন্যের কাধে ভর করে এবং বিদেশিদের কাছে ধরনা দেয়। আন্দোলন করে ক্ষমতাচ্যুত করার শক্তি বিএনপির নেই। তারা এসব করে দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে চায়। এরা দেশ ও জাতির শত্রু।’

তিনি বলেন, ‘অপরাজনীতির কারণে জনবিচ্ছিন্ন গণধিকৃত বিএনপি আর কোনো দিন ক্ষমতায় আসবে না। যতই আন্দোলনের নামে ফটোসেশন করুক। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টার মাইন্ড তারেক রহমান ও এতিমের টাকা মেরে খাওয়ার মামলায় সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়ার দলকে বিএনপি আর কোনোদিনই এদেশে ক্ষমতায় আসবে না। বিএনপি যদি এতই জনপ্রিয় হয়, তাহলে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে জনপ্রিয়তা যাচাই করুক। ক্ষমতায় আসতে হলে বিএনপিকে নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে হবে। দেশের জনগণ উন্নয়নে বিশ্বাস করে। এ দেশের উন্নয়ন, সমৃদ্ধি, শান্তি, সততা ও নির্ভরতার প্রতিক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আগামী নির্বাচনেও আবারও ক্ষমতায় আসবে। আর জননেত্রী শেখ হাসিনা হবে পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী। পৃথিবীর ইতিহাসে এক বিরল রেকর্ড স্থাপন করবেন।’

রাজনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম মীর মালতের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন তালুকদার, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মিহির চক্রবর্তী, রাজনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি দাদন মীর বহর, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মজিবর মেলকার, সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান আবু আলেম মাদবর প্রমুখ।

এ সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ইত্তেফাক/এমএএম