শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

ইউক্রেনকে জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রীর আরও সহায়তার আশ্বাস

আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৬:১৬

কোনো ঘোষণা ছাড়া কিয়েভ সফরে গিয়ে জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরো ট্যাংক ও সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহের আশ্বাস দিলেন। এদিকে যুদ্ধক্ষেত্রে এক হাজারেরও বেশি রুশ সেনা নিহত হয়েছেন বলে ইউক্রেন দাবি করছে।

ইউক্রেনের উপর হামলার বর্ষপূর্তির ঠিক আগে রাশিয়া প্রবল উদ্যমে নতুন করে হামলা শুরু করলেও বিশাল ক্ষতির মুখে পড়ছে। মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারি) ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর সূত্র অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এক হাজারেরও বেশি রুশ সেনা নিহত হয়েছেন, যা গোটা যুদ্ধে মৃতের দৈনিক রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে।

কোনো ঘোষণা ছাড়া কিয়েভ সফরে গিয়ে জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরো ট্যাংক ও সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহের আশ্বাস দিলেন।
 
রাশিয়াও পালটা দাবি করেছে, যে শুধু জানুয়ারি মাসেই প্রায় ৮ হাজার ৫০০ ইউক্রেনীয় সেনা নিহত হয়েছেন। যুদ্ধক্ষেত্রে এমন সংখ্যা নিরপেক্ষভাবে যাচাই করা সম্ভব হচ্ছে না।ইউক্রেনের প্রশাসন মনে করছে, যুদ্ধের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে রাশিয়া মরিয়া হয়ে দেশের মানুষের সামনে কিছু একটা সাফল্য তুলে ধরার চেষ্টা করছে।

ফলে আগামী দিনগুলোতেও জোরালো হামলার আশঙ্কা বাড়ছে। কমপক্ষে পূবের বাখমুত শহর দখল করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে মস্কো। রাশিয়ার হামলা প্রতিহত করতে পশ্চিমা বিশ্বের কাছে অবিলম্বে আরও অস্ত্র, গোলাবারুদ ও সামরিক সরঞ্জাম চাইছে ইউক্রেন। 

রাশিয়াও পালটা দাবি করেছে, যে শুধু জানুয়ারি মাসেই প্রায় ৮ হাজার ৫০০ ইউক্রেনীয় সেনা নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার জার্মানির নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী বরিস পিস্টোরিউস অঘোষিত সফরে কিয়েভে গিয়ে প্রেসিডেন্ট ভোলোদোমির জেলেনস্কি ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেক্সি রেজনিকভের সঙ্গে সে বিষয়ে আলোচনা করেন। উল্লেখ্য, জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্রসহ একাধিক দেশ ব্যাটেল ট্যাংক ও অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিলেও সেগুলো ইউক্রেনের হাতে পৌঁছতে কয়েক মাস সময় লাগবে। 

জার্মানি মঙ্গলবার পুরানো 'লেপার্ড ১' মডেলের ১৭৮টি পর্যন্ত ব্যাটেল ট্যাংক ইউক্রেনে পাঠানোর ছাড়পত্র দিয়েছে। রক্ষণাবেক্ষণের কাজ দ্রুত শেষ করে শেষ পর্যন্ত কত সংখ্যার ট্যাংক দ্রুত হস্তান্তর করা সম্ভব হবে, সেটা অবশ্য স্পষ্ট নয়। অন্যান্য দেশও সেই ট্যাংক ইউক্রেনের হাতে তুলে দিতে পারে। 

মঙ্গলবার জার্মানির নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী বরিস পিস্টোরিউস অঘোষিত সফরে কিয়েভে গিয়ে প্রেসিডেন্ট ভোলোদোমির জেলেনস্কি ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেক্সি রেজনিকভের সঙ্গে সে বিষয়ে আলোচনা করেন।

প্রায় তিন সপ্তাহ আগে ঘোষিত নতুন মডলের 'লেপার্ড ২' ট্যাংক পাঠাতে আরো কিছু সময় লাগবে। পিস্টোরিউস জানান, ট্যাংকগুলো ইউক্রেনের আত্মরক্ষা ও হামলা প্রতিহত করার ক্ষমতা অক্ষত রাখবে বলে জার্মানি আশা করছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রীর কিয়েভ সফরকে 'ইউক্রেনের প্রতি সমর্থনের সংকেত' হিসেবে উল্লেখ করেন। তার মতে, কঠিন এই সময়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্যতম নেতৃস্থানীয় দেশ জার্মানির সহায়তার প্রতি ইউক্রেনের গভীর আগ্রহ রয়েছে। 

প্রায় তিন সপ্তাহ আগে ঘোষিত নতুন মডলের 'লেপার্ড ২' ট্যাংক পাঠাতে আরো কিছু সময় লাগবে।

জার্মানির নতুন সামরিক সহায়তার ঘোষণা সম্পর্কে জেলেনস্কি অবশ্য সরাসরি মন্তব্য করেননি। তিনি জানান, সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তগুলোর ফলে বাড়তি সুবিধা না পেলেও যুদ্ধক্ষেত্রে সমান সুযোগ পাবে ইউক্রেন। তবে সরবরাহের সময়, সরঞ্জামের সংখ্যা ও সরঞ্জামের অবস্থার উপর সাফল্য নির্ভর করবে।

ট্যাংক সরবরাহে সময় লাগলেও চলতি মাসের শেষেই ইউক্রেন আরও গাইডেড মিসাইল, পাঁচটি চিতা অ্যান্টি এয়ারক্রাফট ট্যাংক এবং আরও পাঁচটি ব্যাজার আর্মার্ড ইঞ্জিনিয়ার ভেহিকেল হাতে পাবে।

ইত্তেফাক/ডিএস