রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মালয়েশিয়ায় মাস পেরোতেই লাশ হলেন হৃদয়

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯:১৯

মালয়েশিয়ায় কাজ করা অবস্থায় হৃদয় হোসেন (২১) নামে বাংলাদেশি এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। মালয়েশিয়ার কেল এলাকার পামথিং হাসপাতালে ১৩ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় বেলা ১১টার দিকে শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

নিহত হৃদয় সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল ইউনিয়নের জামতৈল উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস সালামের ছেলে।

হৃদয়ের পরিবার সূত্রে জানা যায়, পরিবারে স্বচ্ছলতা আনতে গত ৩ জানুয়ারি কাজের উদ্দেশ্যে মালয়েশিয়ায় পারি জমান হৃদয়। সেখানে কেল এলাকায় একটি বহুতল ভবনে নির্মাণশ্রমিকের কাজ করছিলেন তিনি। গত ২৮ জানুয়ারি কাজ করার এক পর্যায়ে ভবনটির ওপর থেকে একটি ভারী মেশিন তার ওপর পড়ে। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। শ্রমিকরা হৃদয়কে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শুক্রবার সকালে মারা যান হৃদয়।

এদিকে, সন্তানের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর থেকে বার বার কান্নায় মূর্ছা যাচ্ছেন হৃদয়ের মা। কান্নায় ভেঙে পড়েন স্বজনরা। হৃদয়ের মাকে যেন সান্ত্বনা দেওয়ার ভাষা হারিয়ে ফেলেছেন স্বজনরা।

হৃদয়ের বোন সালমা খাতুন বলেন, আমরা তিন ভাই এক বোনের মধ্যে বড় ভাই বছর দশেক আগে হারিয়ে গেছে। হৃদয় ছিলো মেজ। পরিবারের অভাব অনটনের কারণে নানা জায়গা থেকে ঋণ নিয়ে পরিবারের সচ্ছলতা ফেরাতে মালয়েশিয়া যায় হৃদয়। কিন্ত সেখানে গিয়ে এক মাসের বেতন না পেতেই লাশ হলো হৃদয়।

তিনি বলেন, সরকারের কাছে আমাদের দাবি, সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতর যেন হৃদয়ের লাশটা দ্রুত সময়ের মধ্যে দেশে পাঠাতে সহায়তা করে। পাশাপাশি আমাদের এই ঋণগ্রস্ত পরিবারকে আর্থিক সহায়তা করে।

ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের জেলা সমন্বয়কারী ফাহমিদা আহসান জানান, মালয়েশিয়ায় কর্মরত অবস্থায় হৃদয় নামে এক শ্রমিকের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। হৃদয়ের পরিবাররকে আর্থিক সহায়তায় চেষ্টা করা হবে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আমরা হৃদয়ের লাশ দেশে আনার চেষ্টা করছি। ঋণগ্রস্ত হৃদয়ের পরিবারকে ইউনিয়ন পরিষদ ও ব্যক্তিগতভাবে সহায়তা করা হবে।

ইত্তেফাক/এসকে