সোমবার, ২৯ মে ২০২৩, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

মেডিক্যালের ভর্তি পরীক্ষার সময় ইন্টারনেটের ধীরগতি চান স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আপডেট : ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৮:৫৩

সরকারি-বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজে এমবিবিএস ও বিডিএস ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে পরীক্ষার আগেরদিন থেকে পরীক্ষা চলাকালীন ইন্টারনেটের গতি মন্থর রাখার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। একই সঙ্গে কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে।

সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষাবিষয়ক সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সে ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১০ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ১০টায় পরীক্ষা শুরু হয়ে বেলা ১১টা পর্যন্ত চলবে। পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে সবধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রগুলোতে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে। পরীক্ষার্থী ছাড়া কাউকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হবে না। পরীক্ষার আগেরদিন ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করা হবে। পাশাপাশি কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। 

জাহিদ মালেক বলেন, পরীক্ষার কেন্দ্রের আশেপাশে যেসব ফটোকপি মেশিন আছে, সেগুলো বন্ধের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনকি নতুন করে কেউ বসতে দেওয়া হবে না। যারা পরীক্ষা নেবেন এবং প্রশ্ন তৈরি করবেন, সে বিষয়েও গোপনীয়তা বজায় রাখা হবে।

মন্ত্রী জানান, এ বছর সরকারি মেডিক্যাল কলেজে আসন সংখ্যা ৪ হাজার ৩৫০টি। বেসরকারিতে ৬ হাজার ৭৭২টি। সরকারিতে বিডিএসের আসন ৫৪৫টি, বেসরকারি ১ হাজার ৪০৫টি। মোট কেন্দ্র ১৯টি ও ৫৬টি ভেন্যুতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ইত্তেফাক/এনএ/এমএএম