বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

পুলিশকে চাঁদা দিয়ে চলছে অবৈধ বাঁশবাহী ট্রাক, ঘটছে দুর্ঘটনা

আপডেট : ২৮ মার্চ ২০২৩, ২২:০৯

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে পুলিশকে চাঁদা দিয়ে অবৈধভাবে ৬ চাকার ট্রাকে বাঁশ বহন করার অভিযোগ উঠেছে। নামে বেনামে পুলিশের একটি চক্র এসব ট্রাক থেকে বিপুল অংকের টাকা চাঁদা নিয়ে চলাচলের সুযোগ করে দিচ্ছে। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আঞ্চলিক মহাসড়ক। 

জানা গেছে, টাঙ্গাইলের গোড়াই-সখীপুর-ঢাকা আঞ্চলিক মহাসড়ক চলাচলের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সম্প্রতি প্রায় ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৩৭ কিলোমিটার এ সড়ক সংস্কার করা হয়েছে। নিয়ম রয়েছে সড়কে পণ্য পরিবহনে ৬ চাকার ট্রাকে বাঁশ বহন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। সরকারি নিয়ম অমান্য করে একটি চক্র অধিক মুনাফার জন্য এ সড়কে প্রতিদিন ৬ চাকার ট্রাকে করে ৫০ টনের অধিক বাঁশ নিয়ে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুরসহ বিভিন্ন স্থানে চলাচল করছে। ভারি এসব ট্রাক চলাচলের ফলে পুরো রাস্তা ভেঙে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। 

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, উপজেলায় ২০-২৫ টি বৃহৎ বাঁশের হাট রয়েছে। এসব বাঁশের হাটে লাখ লাখ টাকার বাঁশ বিক্রি হয়। এসব বাঁশ ৬ চাকার ট্রাকে বহন করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে অন্যত্র। পুলিশের কিছু অসাধু সদস্য এবং স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ট্রাক প্রতি ১০-১২ হাজার টাকা চাঁদা নিয়ে অবৈধ এসব বাঁশের ট্রাক চলাচলের সুযোগ করে দিচ্ছে। প্রতিদিন আড়াই থেকে তিন লাখ টাকা চাঁদাবাজি হচ্ছে এ সড়কে। প্রতিমাসে ৭৫-৮০ লাখ টাকা চাঁদা উত্তোলন হচ্ছে। 

ঝুঁকিপূর্ণ এসব বাঁশের ট্রাকের চলাচলের ফলে প্রতিনিয়তই দুর্ঘটনা ঘটছে। গত তিন বছরে গোড়াই-সখীপুর-ঢাকা রোডে বাঁশের ট্রাক দুর্ঘটনায় ১০-১২ জন নিহত ও শতাধিক আহত হয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

হাইওয়ে পুলিশের ওসি মোল্লা টুটুল বলেন, সড়ক ও মহাসড়কে ৬ চাকা বিশিষ্ট ট্রাকে বাঁশ বহনের কোনো অনুমোদন নেই। যারা অবৈধভাবে ৬ চাকার ট্রাকে বাঁশ বহন করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া পুলিশের কোনো সদস্য যদি অবৈধ চাঁদা লেনদেনের সঙ্গে জড়িত থাকে তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইত্তেফাক/এবি/পিও