বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

শিক্ষকের ভুল: সেই বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা ফিরে পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার

আপডেট : ২৯ মার্চ ২০২৩, ১৯:২৮

মেধার স্বীকৃতি স্বরপ প্রধানমন্ত্রীর উপহার ট্যাবলেট কম্পিউটার (ট্যাব) থেকে বঞ্চিত নেত্রকোনার পূর্বধলা জগৎমণি সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সেই মেধাবী নবম ও দশম শ্রেণির ৬ শিক্ষার্থী অবশেষে ফিরে পেলেন তাদের মেধার স্বীকৃতি।

দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপে দুইদিন আগে স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে বিতরণকৃত ট্যাবগুলি ফিরিয়ে এনে বুধবার (২৯ মার্চ) দুপুরে ইউএনও তার কার্যালয়ে ওই মেধাবী ৬ শিক্ষার্থীর হাতে তুলে দেন।

বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির প্রথম স্থান অধিকারী শিক্ষার্থী আফিয়া আলম, দ্বিতীয় স্থান অধিকারী মো. ইফতেকার হাসান সাদিক ও তৃতীয় স্থান অধিকারী নাফিজা আক্তার মিতি ও নবম শ্রেণির প্রথম স্থান অধিকারী শিক্ষার্থী সান্নিধ্য কর স্পর্শ, দ্বিতীয় স্থান অধিকারী ইশরাত জাহান সাওদা ও তৃতীয় স্থান অধিকারী আলী ওল বাকী জয় জানান, নিয়ম অনুযায়ী তারা ট্যাব পাওয়ার কথা থাকলেও বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের ভুলের কারণে ওই ট্যাব থেকে তারা বঞ্চিত হয়েছিল। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের আন্তরিকতায় তারা তাদের
মেধার স্বীকৃতি পায়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ জাহিদ হাসান প্রিন্স বলেন, নীতিমালা অনুযায়ী পূর্বধলা জগৎমণি সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থীরা ট্যাব পায়নি অভিবাবকদের পক্ষ থেকে এমন অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়।

পরে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককের মাধ্যমে ওই বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষাথীদের মাঝে বিতরণকৃত ট্যাবগুলি ফিরিয়ে এনে নীতিমালা অনুযায়ী মেধাবী শিক্ষার্থীদেরকে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, রোববার (২৬ মার্চ) উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো জনশুমারী ও গৃহগণনা ২০২১ প্রকল্প হতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে উপজেলার ৩২টি প্রতিষ্ঠানের নবম ও দশম শ্রেণির প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী তিনজন করে ১৯৮জন মেধাবী শিক্ষার্থীর মাঝে ১৯৮টি ট্যাব বিতরণ করা হয়।

ওই ট্যাব বিতরণে পূর্বধলা জগৎমণি সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নূরে আলম সিদ্দিকী মামুনের স্বেচ্ছাচারিতা ও স্বজনপ্রীতির কারণে মেধাবী শিক্ষার্থীরা তাদেও মেধার মূল্যায়ন থেকে বঞ্চিত হয়েছিল।

ইত্তেফাক/পিও