শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ৭ আশ্বিন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

সব প্রতিকূলতা ঠেলে হকি খেলোয়াড়রা হরিয়ানায়

আপডেট : ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১৪:৩৭

যতটা কষ্টের কথা বলা হয়েছিল তা হয়নি। বাসে, ট্রেনে চড়ে ভারতের হরিয়ানায় পৌঁছে গেছেন অনূর্ধ্ব-২১ জাতীয় হকি দলের খেলোয়াড়রা। এরই মধ্যে ওয়ার্মআপও করে ফেলেছেন তারা। লম্বা ভ্রমণ, ধরে নেওয়া হয়েছিল ক্লান্তি কাটিয়ে উঠতে সময় লাগবে। অনুশীলনে সমস্যা হতে পারে। এসব সমালোচনা মাথায় নেয়নি যুব হকি দলের দলনেতা সাবেক তারকা খেলোয়াড় মাহবুব এহসান রানা। অনেক প্রতিকূলতার মধ্যে দলটাকে গুছিয়েছেন তিনি। 

ঘরের আঙ্গিনা থেকে বাসে তুলে একেবারে কলকাতায় শিয়ালদাহ স্টেশনে নেমে সেখান থেকে আবার ট্রেনে শুয়ে ঘুমিয়ে হরিয়ানায় পৌঁছায়। বিমানে পাঠানো যেত। কিন্তু সব সময় সব হয় না। আন্তরিকতা থাকার পরও সেটি না হলেও কষ্ট নেই। দলটাকে ভালোভাবে পৌঁছানোটা সবচেয়ে বড় কথা। স্বস্তি আসছে রানার মনে। খেলোয়াড়রা হরিনায়ন একাডেমির ঘরে উঠেছে। সবকিছু ঠিকঠাক আছে।

জুনিয়র এশিয়া কাপে খেলতে ওমান যাবে বাংলাদেশ। দলটাকে ওমানে পাঠানোর কীভাবে লম্বা প্রস্তুতি নিয়ে পাঠানো যায় সেদিকটা দেখভাল করেছেন তখন সমন্বয়কারীর দায়িত্ব পাওয়া মাহবুব এহসান রানা। তার শর্ত ছিল প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে হবে। লম্বা সময় অনুশীলন করাতে হবে। ভারতে গিয়ে এত লম্বা সময় অনুশীলন আর কখনো হয়নি। কারণ এ ধরনের কন্ডিশনিং ক্যাম্প করাতে গেলে প্রচুর অর্থের দরকার হয়। 

এবার চাহিদামতো অর্থ সঙ্গে সঙ্গে না পাওয়া গেলেও থেমে ছিল না ভারতে পাঠানোর চিন্তা। নিজেরা অটল ছিলেন দল পাঠাবেনই। শেষ পর্যন্ত যেভাবেই হোক অনুশীলনের জন্য ভারতে দল পাঠিয়ে খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স ভালো করার কাজটা করা গেছে। বাংলাদেশের সুযোগ আছে। ওমানে গিয়ে যদি সেমিফাইনালের টিকিট পাওয়া যায় তাহলে সেটি হকির জন্য মোড় ঘুরে যেতে পারে। ওমানকে হারানোর অভিজ্ঞতা আছে। আর রানা বলছেন কোরিয়াকে হারানোর সুযোগ তারা নিতে চান। 

রানা বলেন, ‘সিনিয়র দলের মতো শক্তিশালী না জুনিয়র কোরিয়া। আমরা সাহস নিয়ে খেললে সাফল্য আসতে পারে। আমাদের সবার উচিত পজিটিভ কথা বলে খেলোয়াড়দেরকে উজ্জীবিত করা।’

ইত্তেফাক/এসএস

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন