বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ভূমিসেবা সপ্তাহ শুরু, চলবে ২৮ মে পর্যন্ত

আপডেট : ২৩ মে ২০২৩, ১৬:৪৪

সারাদেশে শুরু হয়েছে ভূমি সেবা সপ্তাহ-২০২৩। ভূমি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এই কর্মসূচির এবারের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘স্মার্ট ভূমি সেবায় ভূমি মন্ত্রণালয়।’ কোন ধরনের হয়রানি, ভোগান্তি ছাড়াই মিলবে ভূমির যাবতীয় সেবা। ঢাকাসহ দেশের আটটি বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এই কর্মসূচির বিষয়ে জানানো হয়।

সোমবার (২২ মে) থেকে আগামী ২৮ মে পর্যন্ত দেশের ৮টি বিভাগ, ৬৪টি জেলা এবং ৫০৭টি উপজেলা, রাজস্ব সার্কেল, ইউনিয়ন ও পৌর ভূমি অফিসে এই কর্মসূচি চলবে। ভূমি সংক্রান্ত সেবাগুলোর মধ্যে ই-নামজারি, অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর প্রদান, মৌজা ম্যাপ, খতিয়ান প্রদানসহ ভূমি সংক্রান্ত অন্যান্য সেবা দেওয়া হবে। 

তারই অংশ হিসেবে সোমবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ঢাকা বিভাগের ভূমি সেবা সপ্তাহের কর্মসূচি জানিয়ে দেওয়া হয়। ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার মো. সাবিরুল ইসলাম জানান, সেবা সপ্তাহ চলাকালে সেবাগ্রহীতারা হয়রানি, ভোগান্তিমুক্তভাবে ভূমি সংক্রান্ত যেকোনো সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

বিভাগীয় কমিশনার তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে ঢাকা বিভাগের ১৩টি জেলা, ১৭টি রাজস্ব সার্কেল, ৮৯টি উপজেলা ও ৭৫৩টি ইউনিয়ন ভূমি অফিসে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। সব ভূমি অফিসে ভূমি সেবা ও তথ্য বুথ স্থাপন করা হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে জমে থাকা বা আটকে থাকা ভূমি সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানের সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হবে। সেবা দেওয়ার সময় কর্তব্যরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাজে শিথিলতা বা কোন ধরনের অবহেলা, উদাসীনতা লক্ষ করা গেলে তার বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সোমবারের সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) এ জেড এম নজরুল হক, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব)সহ কমিশনার কার্যালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় স্মার্ট ভূমি সেবা নিয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ সমূহ, আইনের সংস্কার, মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা, প্রশিক্ষণ ও প্রযুক্তি, নাগরিক তথা সেবাগ্রহীতার প্রাপ্তিসমূহ, ই-রেজিস্ট্রেশন ও ডিজিটাল ভূমিসেবা সিস্টেমের আন্ত:সংযোগ, স্মার্ট ভূমি রেকর্ড, স্মার্ট ভূমি নকশা, স্মার্ট ভূমি পিডিয়া, স্মার্ট নাগরিক ভূমি সেবা ও আগামী ২০২৬ সালের ভূমি ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

ইত্তেফাক/এমএএম