শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

নিজ ঘরে হাত-পা ও মুখ বাঁধা লাশ উদ্ধার, পুলিশের ধারণা শ্বাসরোধে হত্যা

আপডেট : ২৬ মে ২০২৩, ২০:৩৫

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে হাত-পা ও মুখ গামছা দিয়ে বাঁধা অবস্থায় শোবার ঘর থেকে সুলতান মাহমুদ (৫০) নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৫ মে) রাতে উপজেলার জামুরিয়া ইউনিয়নের গালা গ্রাম থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত সুলতান মাহমুদ একই এলাকার মৃত মুসা সরকারের ছেলে।

জানা যায়, সুলতান বাড়িতে একাই থাকতেন। বৃহস্পতিবার সুলতানের মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করেও  তার ভাই তার কোনো খবর পাচ্ছিলেন না। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও সুলতানের খবর না পেয়ে স্বজনরা তার  পুলিশে চাকরি করে এক ভাগ্নেকে জানায়। পরে ওই ভাগ্নে থানা পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করে। রাতেই পুলিশ এসে সুলতানের ঘরে প্রবেশ করে হাত-পা ও গামছা দিয়ে মুখ বাঁধা অবস্থায় তার অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করে। পুলিশের ধারণা ৩-৫ দিন আগে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। 

স্থানীয়রা জানান, নিহতের ১১ ভাই-বোন। সুলতান সবার ছোট। তিনি আলাদা বাড়িতে বসবাস করতেন। দুই বিয়ে করলেও কোনো স্ত্রীই তার সঙ্গে থাকে না। সুলতানের নির্যাতনের কারণেই তারা চলে গেছে। এছাড়া বড় ভাই সিরাজুলের সঙ্গেও রয়েছে দ্বন্দ্ব। তবে কে বা কারা তাকে হত্যা করেছে তা কেউ জানেনা।  

ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. লোকমান হোসেন বলেন, রাত আড়াইটার দিকে গালা গ্রাম থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। হত্যার রহস্য উদঘাটনে চেষ্টা চলছে। 

 

ইত্তেফাক/এবি/পিও