রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

হাত নেই, পা দিয়ে লিখে উচ্চ শিক্ষার স্বপ্ন হাবিবুরের 

আপডেট : ০৫ জুন ২০২৩, ১৯:০৫

জন্ম থেকেই তার দুটি হাত নেই। ফলে আর দশজন স্বাভাবিক মানুষের মতো হাত দিয়ে লেখার সক্ষমতাও নেই। তবে এ অক্ষমতা তাকে দমিয়ে রাখতে পারেনি। 

প্রবল ইচ্ছে শক্তি আর দৃঢ় মনোবলের কাছে প্রতিবন্ধকতা হার মেনেছে। বলছিলাম রাজবাড়ী জেলার কৃষক বাবার সন্তান হাবিবুর রহমানের কথা। যিনি পা দিয়ে লিখেই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন। 

সোমবার (৫ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদ ভবনের ১০৩ নম্বর কক্ষে স্বতন্ত্র ডি ইউনিটের ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন তিনি। 

সরেজমিনে দেখা যায়, একটি চেয়ারের ওপর বসে অন্য একটি চেয়ারে প্রশ্ন ও উত্তর পত্র রেখে বা’পায়ের দুই আঙ্গুলের ফাঁকে কলম ডুকিয়ে লিখছেন হাবিবুর। পা দিয়ে লিখলেও অন্য শিক্ষার্থীদের থেকে বেশ আত্নবিশ্বাসী মনে হচ্ছিল তাকে।

জানা যায়, হাবিবুরের বাড়ি রাজবাড়ী জেলার পাংশা থানার হেমায়েতখালি গ্রামে। তার বাবার নাম আব্দুস সামাদ এবং মায়ের নাম হেলেনা খাতুন। চার ভাই বোনের মধ্যে হাবিব দ্বিতীয়। 

পরীক্ষা শেষে কথা হয় হাবিবুরের সঙ্গে। তিনি বলেন, পরীক্ষা ভালো হয়েছে। তবে পা দিয়ে লিখতে সমস্যা হয়। কলম পড়ে যায়। কষ্ট হবে বিপদ আসবে সংগ্রামের সঙ্গে প্রতিবন্ধকতাকে জয় করতে হবে। আমার মতো যাদের এ রকম সমস্যা রয়েছে তাদেরকে বলতে চাই, হীনমন্যতায় ভােগা যাবে না। সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে হবে। চেষ্টা না করলে কোনো কিছুই সম্ভব না। 

এ প্রসঙ্গে ঐ পরীক্ষা কক্ষের দায়িত্বে থাকা আইন বিভাগের প্রফেসর ড. রেবা মণ্ডল বলেন, ছেলেটি একজন অদম্য জীবন যোদ্ধা। আমরা পরীক্ষা হলে তাকে যথাসাধ্য সহযোগিতা করেছি।

ইত্তেফাক/পিও