শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

তিন জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

আপডেট : ১০ জুন ২০২৩, ১৫:১৭

বগুড়া, ফরিদপুর ও দিনাজপুরে  সোমবার (১০ জুন) সকালে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় চার জন নিহত ও দুজন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

নিহতরা হলেন রাজশাহীর বাঘার হরিরামপুর গ্রামের মানিক মন্ডলের ছেলে শাহাবুল ইসলাম (২৪), ফরিদপুরের সদরপুরের কাচারিডাঙ্গী গ্রামের মালেক মাতুব্বরের ছেলে হানিফ মাতুব্বর (৪০), সদরপুরের ঢেউখালী ইউনিয়নের ইউনুস বেপারীর ছেলে মো. জহিরুল বেপারী (৩০) ও বগুড়ার নবাবগঞ্জের আফতাবগঞ্জ পলিমির্জাপুর গ্রামের বুদু মিয়ার ছেলে হামিন রহমান (৪০)।

ইত্তেফাক সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর। 

বগুড়ার নন্দীগ্রামে সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে সিএনজি চালক নিহত হয়েছেন।

কুন্দারহাট হাইওয়ে থানার ওসি আব্বাস আলী জানান, সকালে জেলার সদরপুর থেকে মাছ বোঝাই সিএনজি চালিত একটি অটোরিকশা বগুড়া শহরের দিকে যাচ্ছিল। পথে অটোরিকশাটি নন্দীগ্রাম এলাকায় পৌঁছলে বিপরীতদিক থেকে আসা একটি পিকআপ ভ্যান অটোরিকশাকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলে চালক নিহত হন।

এদিকে, ফরিদপুরের সদরপুরের পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছেন।

লাশ উদ্ধার করে ফরিদপুরের সদরপুর থানা নিয়ে যায় পুলিশ। ছবি: ইত্তেফাক

 

সদরপুর থানার ওসি সুব্রত গোলদার জানান, সকালে সদরপুর থেকে একটি করিমন কৃষ্ণপুর বাজারের দিকে যাওয়ার সময় কাটাখালী বাজারের পাশে বিপরীতদিক থেকে আসা ইজিবাইকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে করিমনটি উল্টে যায়। এ সময় চালক করিমনের নিচে পরে নিহত হন। 

এছাড়া শুক্রবার (৯ জুন)  সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার চন্দ্রপাড়া বাজার ঘাট এলাকায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের থাকা বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা লেগে মো. জহিরুল বেপারী নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

অন্যদিকে, দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে লোহার পাইপ বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় এক অটোরিকশা চালক নিহত হয়েছে।

বগুড়ার নন্দীগ্রামে দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত সিএনজি চালিত অটোরিকশা। ছবি: ইত্তেফাক

ফুলবাড়ী থানার ওসি আশ্রাফুল ইসলাম জানান,  শনিবার সকালে লিচু আনার জন্য হামিন রহমান তার অটোরিকশা নিয়ে চিরিরবন্দর যাওয়ার পথে ফুলবাড়ীর পুটকিয়া এলাকায় দিনাজপুরগামী একটি ট্রাক অটোরিকশাকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিকশা চালক হামিন ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।  

ইত্তেফাক/আরএজে