মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ফুলপরীকে নির্যাতন: অন্তরাসহ অভিযুক্তদের আত্মপক্ষ সমর্থন

আপডেট : ১২ জুন ২০২৩, ১৯:১৫

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলে ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শিক্ষার্থী ফুলপরীকে রাতভর নির্যাতনের ঘটনায় আত্মপক্ষ সমর্থন করে বক্তব্য দিয়েছেন শাখা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সহসভাপতি সানজিদা চৌধুরী অন্তরাসহ পাঁচজন। এছাড়া ভুক্তভোগী ফুলপরীকেও ডাকা হয়েছে তার বক্তব্য উপস্থাপনের জন্য। 

সোমবার (১২ জুন) বেলা ১১টার দিকে উপাচার্যের সভাকক্ষে ছাত্রশৃঙ্খলা কমিটির সভায় উপস্থিত হয়ে আত্মপক্ষ সমর্থন করেন অভিযুক্তরা। তারা হলেন অন্তরা, তাবাসসুম, মোয়াবিয়া, মীম ও উর্মী। এরমধ্যে মোয়াবিয়া ও উর্মি নতুন করে বক্তব্য সংযোজন করেছেন। 

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড শেখ আবদুস সালাম, সহ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, প্রক্টর প্রফেসর ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ ও ছাত্র উপদেষ্টা প্রফেসর ড. শেলীনা নাসরীনসহ ছাত্র শৃঙ্খলা কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। 

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ফুলপরী বলেন, আমাকে তেমন কিছু জিজ্ঞেস করে নি। যে অভিযোগগুলো প্রথমে দিয়েছিলাম সেগুলোতে কোনো কিছু বাদ পড়েছে কিনা তা জানতে চাওয়া হয়েছিল। এর বাইরে নতুন কিছু বলার নেই বলে তাদের জানিয়েছি। 

অভিযুক্ত সানজিদা চৌধুরী অন্তরা বলেন, শুনানি চলাকালে আমি তদন্তের কিছু অসঙ্গতি তুলে ধরার চেষ্টা করেছিলাম। তবে কর্তৃপক্ষ আমাকে শুধু আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য বিশেষ কিছু থাকলে তা তুলে ধরতে বলেন। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ বলেন, তারা যে জবাব দিয়েছিল এর বাইরে নতুন কোনো বক্তব্য আছে কিনা সেটা জানতে তাদের ডাকা হয়েছিল। তারা উপস্থিত হয়ে মৌখিক শুনানিতে অংশগ্রহণ করেছে। কর্তৃপক্ষ তাদের বক্তব্য আমলে নিয়েছে। ঈদের ছুটি শেষে তাদের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর ড. শেলিনা নাসরীন বলেন, নিজেদের নির্দোষ প্রমাণের জন্য তারা বক্তব্য দিয়েছে। এর আগে লিখিত দিয়েছিলো, আজ মৌখিকভাবে তাদের বক্তব্য নেওয়া হয়েছে। এখন তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ পর্যালোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ইত্তেফাক/এবি/পিও