শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপ

ইতালির ‘প্রথম’-এর আশা গুঁড়িয়ে উরুগুয়ের ‘প্রথম’

আপডেট : ১৩ জুন ২০২৩, ১২:১৩

বড়দের বিশ্বকাপে চার বার চ্যাম্পিয়ন ইতালি। ছোটদের বিশ্বকাপে অর্থাৎ ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপে সেই ইতালি একবারও চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। ফাইনালে এবার সেই আফসোস মুছে ফেলার স্বপ্নে বিভোর ছিল ইতালিয়ান তরুণরা। কিন্তু এবারও ‘ছোট আজ্জুরি’দের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বাদ পূর্ণ হলো না। ইতালির প্রথম শিরোপার স্বপ্ন চুরমার করে প্রথম বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছে উরুগুয়ে। পরশু রাতে আর্জেন্টিনার লা প্লাটার এস্তাদিও উনিকো আরমান্ডো ডিয়েগো মারাদোনা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ইতালিকে ১-০ গোলে হারিয়েছে এডিনসন কাভানি, লুইস সুয়ারেজদের উত্তরসূরিরা।

মানে আরো একবার অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপের ট্রফি গেল দক্ষিণ আমেরিকায়। ছোটদের এই বিশ্বকাপে দক্ষিণ আমেরিকার দুই দেশ আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের জয়জয়কার। মোট ২৩ বারের মধ্যে ১১ বারই শিরোপা উদযাপন করেছে এই দুই দল। আর্জেন্টিনা জিতেছে সর্বোচ্চ ৬ বার। ব্রাজিল দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫ বার, ঠিক বড়দের সমান! শিরোপা সংখ্যাটা ৭-এ উন্নীত করার স্বপ্ন নিয়েই এবার টুর্নামেন্টের স্বাগতিক হয়েছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু লিওনেল মেসিদের উত্তরসূরিরা দেশবাসীকে ‘ডাবল’ বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দে ভাসাতে পারেনি। নাইজেরিয়ার কাছে দ্বিতীয় রাউন্ডেই হেরে যায় তারা। ব্রাজিলও টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ইসরাইলের কাছে হেরে। সেই ইসরাইল শেষ পর্যন্ত তৃতীয় হয়েছে প্লে-অফে দক্ষিণ কোরিয়াকে হারিয়ে।

ছোটদের এই বিশ্বকাপে এবারই প্রথম বারের মতো ফাইনালে উঠেছিল ইতালি। বিপরীতে উরুগুয়ে এর আগেও দুবার ফাইনালে উঠেছিল, ১৯৯৭  ও ২০১৩ সালে। সেই দুই বারই তাদের তীরে গিয়ে তরী ডোবার বেদনায় পুড়তে হয়। ১৯৯৭ সালে হার মানে আর্জেন্টিনার কাছে। ২০১৩ সালে তাদের হারিয়ে শিরোপা উল্লাস করে ফ্রান্স। অবশেষে তৃতীয় বারের চেষ্টায় ঠিকই সফল হলো  উরুগুয়ে।

লা প্লাটার আরমান্ডো ডিয়েগো মারাদোনা স্টেডিয়ামে ‘প্রথম’ শিরোপার আশায় দুই দলই লড়াই করছিল সমানতালে। কিন্তু কোনো দলই গোল করতে পারছিল না। দক্ষিণ আমেরিকার দেশ হিসেবে স্টেডিয়ামে উপস্থিত ৪০ হাজারের বেশি দর্শকের বেশির ভাগই ছিল উরুগুয়ের পক্ষে। শেষ পর্যন্ত দর্শকদের সেই সমর্থনেরই জয় হয়েছে। ম্যাচের ৮৬ মিনিটে হেড করে অসাধারণ এক গোল করে উরুগুয়েকে লিড এনে দেন লুসিয়ানো রদ্রিগেজ। শেষে তার গোলটিই উরুগুয়েকে ভাসিয়েছে প্রথম চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আনন্দে। দেশকে শিরোপা উপহার দিতে না পারলেও ইতালির তরুণ মিডফিল্ডার সিজারে কাসাদেই ব্যক্তিগত অর্জনে পকেট ভরিয়ে ফেলেছেন। গোল্ডেন বল ও গোল্ডেন বুট-টুর্নামেন্টের ব্যক্তিগত দুটি বড় পুরস্কারই জিতে নিয়েছেন ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় বিভাগের দল রিডিংয়ে খেলা ২০ বছর বয়সী এই তারকা। মিডফিল্ডার হিসেবে দলের খেলা তৈরির পাশাপাশি টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ৭টি গোলও করেছেন তিনি। আফসোস, ফাইনালে গোল করতে পারেননি তিনি। পারেনি তার দলও।

ইত্তেফাক/এসএস

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন