মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মনিটাইজেশন পদ্ধতি সহজ করল ইউটিউব

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২৩, ০৬:৩৬

বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে বিনোদনের জন্য সকলেই কমবেশি নজর রাখেন ইউটিউবে। বহু মানুষ ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জনও করেন। কিন্তু ইউটিউবে টাকা উপার্জন কিন্তু মোটেও সহজ নয়। তার জন্য বেশ কিছু কঠিন ধাপ পেরতে হয়। যার ফলে অনেকেই চ্যানেল খুললেও খানিকটা হতাশ হয়েই মাঝ পথে বন্ধ করে দেন ভিডিও আপলোড। তাদের কথা ভেবেই মনিটাইজেশন পদ্ধতিতে কিছুটা সহজ করল ইউটিউব।

বিষয়টা ঠিক কী? এতদিন ইউটিউব থেকে উপার্জন শুরু করার ক্ষেত্রেও বেশ কিছু ধাপ পেরতে হত।

পলিসি অনুযায়ী, যে কোনও চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা কমপক্ষে হতে হত ১০০০। এখানেই শেষ নয়, ওয়াচ আওয়ার হতে হত ৪০০০ ঘণ্টা। তবে ভিডিওতে ৪ হাজার ঘণ্টা ওয়াচ আওয়ার বা শর্টটে ১০ মিলিয়ন ভিউ হলেও চ্যানেলে মনিটাইজেশন হত। কিন্তু এই লক্ষ্য পূরণ করা নতুন চ্যানেলের জন্য অত্যন্ত কঠিন। সেই কথা চিন্তা করেই পদক্ষেপ করল ইউটিউব। এবার আর ১০০০ নয়, সাবক্রাইবারের সংখ্যা পাঁচশো হলেই চ্যানেল মনিটাইজেশন হবে। অর্থাৎ উপার্জন করতে পারবেন টাকা। তবে সেই সঙ্গে ওয়াচ আওয়ার হতে হবে ৩০০০ ঘণ্টা। তবে এই মুহূর্তে নির্দিষ্ট কয়েকটি দেশের ব্যবহারকারীরা এই সুযোগ পাবেন। তার মধ্যে আছে আমেরিকা, কানাডা, তাইওয়ান ও সাউথ কোরিয়া।

ইউটিউবের এই সিদ্ধান্ত নতুন বা ছোট ক্রিয়েটারদের সাহায্য করবে বলেই মনে করছে সংস্থা। প্রসঙ্গত, ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে তার ভিডিও-এর ভিত্তিতেই যে উপার্জন হয় তা নয়। সঙ্গে রয়েছে বিভিন্ন ব্যান্ডের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ। যার বিনিময়ে মোটা টাকা উপার্জন করেন ক্রিয়েটররা। বলা যায়, বর্তমান সময়ে উপার্জনের একটা বড় সুযোগ দিচ্ছে ইউটিউব।

 

ইত্তেফাক/এমএএম