সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

৭ শিশু হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত ব্রিটিশ নার্স

আপডেট : ১৮ আগস্ট ২০২৩, ২২:২৬

সিরিয়াল কিলিং বা সাইকোপ্যাথ কিলারদের নানা রকম ঘটনার নজির পৃথিবীতে রয়েছে। তবে শিশুদের হত্যা করে কুখ্যাত হওয়া সিরিয়াল কিলিংয়ের ঘটনা নজিরবিহীন এবং হৃদয়বিদারক। সম্প্রতি ৭ শিশুকে হত্যা এবং আরও ৬ শিশুকে হত্যা চেষ্টা করে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন একজন ব্রিটিশ নার্স।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, নার্স যে হাসপাতালে কাজ করতেন তিনি সেই হাসপতালের ৬ শিশুকে হত্যা চেষ্টা করেছিলেন। এর আগেও তিনি আরও ৭ শিশুকে হত্যা করেছেন। ঘটনার পর তাকে দেশের সবচেয়ে ভয়ানক শিশু সিরিয়াল কিলার হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

উত্তর ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার ক্রাউন কোর্ট লুসি লেটবি (৩৩) নামক ওই নার্সকে তার অধীনে থাকা বাচ্চাদের রক্তে এবং পেটে বাতাস প্রবেশ করানো, তাদের অতিরিক্ত দুধ খাওয়ানো, তাদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত এবং ইনসুলিন দিয়ে বিষ প্রয়োগ করার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করেছে।

ব্রিটেনের ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিস (সিপিএস) এক বিবৃতিতে বলেছে, ২০১৫ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে কাউন্টেস অব চেস্টার হাসপাতালের নবজাতক ওয়ার্ডে তিনি গোপনে ১৩টি শিশুর ওপর হামলা করেছিলেন।

শিশুদের হত্যার পর সেগুলোকে স্বাভাবিক মৃত্যু বলে প্রচার করতেন তিনি। তবে হাসপাতালের চিকিত্সকরা মারা যাওয়া বা অপ্রত্যাশিতভাবে দুর্বল হয়ে যাওয়া শিশুর সংখ্যা মারাত্মকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ার ঘটনা খেয়াল করেন। কিন্তু চিকিৎসকরা শুরুতে এর কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছিলেন না বলে আদালতকে বলেছেন। এরপর পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে।

যুক্তরাজ্যের পিএ মিডিয়া নিউজ এজেন্সি অনুসারে, ২০১৮ এবং ২০১৯ সালে লেটবিকে তদন্তের জন্য পুলিশ দুবার গ্রেপ্তার করেছিল। ২০২০ সালের নভেম্বরে তাকে আবার গ্রেপ্তার করা হয়।

কর্তৃপক্ষ তার ঠিকানা অনুসন্ধানের সময় তার লেখা কিছু নোট খুঁজে পেয়েছে। নোটগুলোতে লেখা ছিল, ‘আমি বেঁচে থাকার যোগ্য নই। আমি তাদের উদ্দেশ্যমূলকভাবে হত্যা করেছি কারণ আমি তাদের যত্ন নেওয়ার মতো যথেষ্ট ভাল নই।’ ‘আমি একজন ভয়ঙ্কর দুষ্ট ব্যক্তি’। ‘আমি খারাপ, আমি এই কাজ করেছি।’

ভুক্তভোগীদের পরিবারের ভাষ্য, তারা ভেবেছিলেন হয়তো কখনোই তাদের শিশুদের মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে পারবেন না।

২১ আগস্ট ম্যানচেস্টার ক্রাউন কোর্টে লেটবিকে সাজা দেওয়া হবে বলে সিএনএন জানিয়েছে।

ইত্তেফাক/এসএটি/এবি