বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

বিটিআই আমদানিতে জালিয়তি: মার্শাল অ্যাগ্রোভেটকে কালো তালিকাভুক্ত করে মামলার প্রস্তুতি

আপডেট : ১৯ আগস্ট ২০২৩, ১৭:১৭

মশা নিয়ন্ত্রণে ব্যাসিলাস থুরিনজিয়েনসিস ইসরায়েলেনসিস (বিটিআই) কীটনাশক আমদানিতে জালিয়াতির অভিযোগে রাসায়নিক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান মার্শাল অ্যাগ্রোভেট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)।

শনিবার (১৯ আগস্ট) কর্পোরেশনের এক অফিস আদেশে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে।

একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতিও নেওয়া হচ্ছে বলে গণমাধ্যমকে জানান ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা। 

তিনি বলেন, ‘বিষয়টি তদন্তে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ শরীফ উদ্দিনের নেতৃত্বে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।’

আজ দেওয়া ডিএনসিসির অফিস আদেশে বলা হয়, সরবরাহকৃত বিটিআই বেস্ট কেমিক্যালের উৎপাদিত এবং সরবরাহকৃত কি না, এ–সংক্রান্ত সব প্রমাণ দাখিল ও বিস্তারিত ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য মার্শাল অ্যাগ্রোভেট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজকে পরপর দুটি চিঠি দেওয়া হয়। চিঠির বিষয়ে মশকনিধন কীটনাশক ও যন্ত্রপাতি কারিগরি ও যাচাই কমিটির ১৭ আগস্টের সভায় পর্যালোচনা করা হয়। পর্যালোচনায় দেখা যায়, সরবরাহ করা বিটিআই সিঙ্গাপুরের বেস্ট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজে উৎপাদিত বলে কোনো প্রমাণ দাখিল করতে পারেনি মার্শাল অ্যাগ্রোভেট।

ডিএনসিসির অফিস আদেশে আরও বলা হয়, ভান্ডার ও ক্রয় বিভাগের দাপ্তরিক ই-মেইল থেকে সিঙ্গাপুরের বেস্ট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। তারা জানায়, বেস্ট কেমিক্যাল থেকে এসব মাল মার্শাল অ্যাগ্রোভেটকে সরবরাহ করা হয়নি। মার্শাল অ্যাগ্রোভেট তাদের নিযুক্ত পরিবেশক নয়। এ ছাড়া লি কিয়াং নামের এক ব্যক্তিকে বেস্ট কেমিক্যালের রপ্তানি ব্যবস্থাপক বলে দাবি করা হয়েছিল। তিনি বেস্ট কেমিক্যালের কর্মচারী নন।

ইত্তেফাক/এসজেড