শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

মনোনয়নপত্র বাছাই শেষ হচ্ছে কাল

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৩:০০

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে দাখিল করা মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই চলছে। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই কার্যক্রম চলবে আগামীকাল সোমবার পর্যন্ত। এ যাচাই-বাছাইয়ের মধ্যে প্রার্থীর তথ্যে কোনো গড়মিল পেলে তার মনোনয়নপত্র বাতিল হতে পারে বলে ইসি সূত্র জানিয়েছে। 

এদিকে নির্বাচনকে সামনে রেখে গতকাল শনিবার বন্ধের দিনেও নির্বাচন কমিশন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়ালের সঙ্গে বৈঠক করেছেন স্পেশাল ব্রাঞ্চ (এসবি) প্রধান মনিরুল ইসলাম। দুপুরে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে বৈঠকের বিষয়বস্তু সম্পর্কে কোনো তথ্য জানা যায়নি।

এবার মনোনয়নপত্র যাচাইয়ে যে বিষয়গুলো বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে তা হলো প্রার্থীর ব্যক্তি তথ্য। মনোনয়ন তথ্য গোপন করলেই যে কোনো প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হতে পারে। আর যাচাই-বাছাইয়ে বেশ গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে কয়েকটি বিষয়। এরমধ্যে রয়েছে-স্বতন্ত্র প্রার্থীদের এক শতাংশ ভোটারের সমর্থনের তথ্য ঠিক কি না কিংবা কেউ তথ্য গোপন করেছেন কি না। এছাড়া কোনো প্রার্থী ফৌজদারি মামলার আসামি বা ঋণখেলাপি কি না তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দেখা হচ্ছে প্রার্থীদের টেলিফোন, গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির বিল পরিশোধের হালনাগাদ তথ্য।

গত ৩০ নভেম্বর শেষ হয়েছে মনোনয়নপত্র দাখিলের সময়। নির্বাচনে অংশ নিতে ইচ্ছুক ২ হাজার ৭১২ জন ৩০০ আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। বর্তমানে মনোনয়ন যাচাই-বাছাইকে কেন্দ্র করে ব্যস্ত সময় পার করছে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়সহ মাঠ কার্যালয়গুলো। শুক্রবার ও শনিবার বন্ধের দিনেও বেশ কর্মমুখর ছিল এসব অফিস। বাছাই শেষে সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে বৈধ প্রার্থীদের তালিকা জানানো হবে।                

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের ঘোষিত তপসিল অনুযায়ী, বৈধ প্রার্থীর তালিকা প্রকাশের পর রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কমিশনে আপিল দায়ের ও নিষ্পত্তি ৫ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৭ ডিসেম্বর। রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রতীক বরাদ্দ করবেন ১৮ ডিসেম্বর। নির্বাচনি প্রচার চলবে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত। ভোটগ্রহণ হবে ৭ জানুয়ারি।

এবারের নির্বাচনে সারা দেশে মোট ভোটার ১১ কোটি ৯৬ লাখ ৯১ হাজার ৬৩৩ জন। গত ২ নভেম্বর সংসদ নির্বাচনের চূড়ান্ত ভোটার সংখ্যা প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশন। ইসির দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, মোট ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৬ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৫৭৯ জন এবং নারী ভোটার ৫ কোটি ৮৯ লাখ ১৯ হাজার ২০২ জন। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটারের সংখ্যা ৮৫২ জন।

ইত্তেফাক/এমএএম