বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন

এবার শামীম ওসমান ও সাবেক ইসি সচিবকে শোকজ

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:২৬

আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এবং নৌকার প্রার্থী এ কে এম শামীম ওসমানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দেওয়া হয়েছে। এছাড়া নির্বাচনী আচরণবিধি ভাঙার অভিযোগে সুনামগঞ্জ-৪ আসনে নৌকার প্রার্থী ও নির্বাচন কমিশনের সাবেক সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিককে তলব করেছে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) এই দু'জনকে শোকজ করা হয়েছে। জানা গেছে, শামীম ওসমানকে রোববার (৩ ডিসেম্বর) আদালতে সশরীরে উপস্থিত হয়ে কিংবা তার প্রতিনিধির মাধ্যমে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির কর্মকর্তা ও যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ কাজী ইয়াসিন হাবীবের পাঠানো নোটিশে জানানো হয়, গণমাধ্যমের সচিত্র সংবাদ অনুযায়ী তল্লা এলাকার বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় আসন্ন সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ফেস্টুন ও বাদ্যযন্ত্র নিয়ে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে মিছিল ও পথসভা হয়। যাতে বর্ণিত এলাকায় যানবাহন ও পথচারীদের চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। এরূপ কার্যক্রম ‘সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮’ এর ৬ (ঘ) এবং ১২ বিধির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

এদিকে ড. মোহাম্মদ সাদিককে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, এমপি পদপ্রার্থী হিসেবে গত ২৯ নভেম্বর দুপুরে সুনামগঞ্জ শহরের প্রধান প্রধান সড়কে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রাসহ শোডাউন করে গাড়িবহর নিয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সমাবেশে মিলিত হন। শোডাউন করে জনগণের চলাচলের পথে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করেন, যা সুনামগঞ্জের স্থানীয় দৈনিকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। এর মাধ্যমে আপনি সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮ এর ৬ (ঘ), ৮(ক), ১০(ক) এবং ১২ বিধির বর্ণিত বিধান লঙ্ঘন করেছেন।

নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরুর পর থেকেই প্রার্থীদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগের পাল্লা ভারী হচ্ছে। বিশেষ করে বার বার আচরণবিধি লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে। মন্ত্রী, একাধিকবারের সংসদ সদস্য, রাজনীতিতে জড়িয়ে পরা সরকারের সাবেক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ খেলোয়াড়রাও বাদ পড়ছেন না।

ইত্তেফাক/এসকে