বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

বাইডেনের ইসরায়েল-গাজা নীতির প্রতিবাদে মার্কিন শিক্ষা কর্মকর্তার পদত্যাগ

আপডেট : ০৪ জানুয়ারি ২০২৪, ১৭:৩৮

ইসরায়েল-গাজা যুদ্ধ পরিচালনা করছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এই নীতির কারণে যুদ্ধে ক্রমাগত বাড়ছে মৃত্যু। তাই তার নীতির সঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করে বুধবার পদত্যাগ করেছেন মার্কিন শিক্ষা বিভাগের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

এছাড়াও বুধবার বাইডেনের পুনঃনির্বাচনের ১৭ কর্মী একটি বেনামী চিঠিতে সতর্কতা জারি করে লিখেছেন, এই ইস্যুতে ভোটার হারাতে পারেন বাইডেন।

শিক্ষা সচিব মিগুয়েল কার্ডোনাকে লেখা একটি চিঠিতে শিক্ষা বিভাগের পরিকল্পনা, মূল্যায়ন ও নীতি উন্নয়নের অফিসের বিশেষ সহকারী তারিক হাবাশ বলেছেন, ‘আমি চুপ থাকতে পারলাম না। কারণ নিরীহ ফিলিস্তিনিদের  জীবনের ওপর নৃশংসতা চলছে। নেতৃস্থানীয় মানবাধিকার বিশেষজ্ঞরা একে ইসরায়েলি সরকারের গণহত্যামূলক অভিযান বলে অভিহিত করেছেন। অথচ এই প্রশাসন ফিলিস্তিনিদের প্রতি অন্ধ।’

হাবাশ একজন ফিলিস্তিনি-আমেরিকান এবং ছাত্র ঋণ বিশেষজ্ঞ। শিক্ষা বিভাগের ছাত্র ঋণের বিল্ড-আউটের অংশ হিসেবে বাইডেনে প্রশাসন তাকে নিয়োগ দিয়েছিল।

বাইডেনের পুনঃনির্বাচন প্রচারের ১৭ জন বেনামী কর্মী মিডিয়াম প্রকাশিত তাদের চিঠিতে গাজায় যুদ্ধবিরতির জন্য বাইডেন প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

কর্মীরা চিঠিতে লিখেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট কর্মীদের জন্য বাইডেন স্বেচ্ছাসেবকদের দলে পদত্যাগ করতে দেখেছেন। যারা কয়েক দশক ধরে একচেটিয়া ভাবে ডেমোক্র্যাট দলের ভোটার ছিলেন তারাও ইসরায়েল-গাজা সংঘাতের কারণে ভোট দেবেন কিনা তা নিয়ে দ্বিধায় আছেন।’

গাজায় ইসরায়েলের সামরিক অভিযানের বিষয়ে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে দক্ষিণ আফ্রিকার দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এই কার্যক্রমের প্রতিক্রিয়ায় স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার বুধবার বলেছিলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র গাজায় গণহত্যা সংগঠিত করে এমন কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণ করেনি। ইসরায়েলও গাজায় গণহত্যার দাবি অস্বীকার করেছে।

স্টেট ডিপার্টমেন্টের সাবেক কর্মকর্তা জশ পল ইসরায়েলের প্রতি ‘অন্ধ সমর্থনের’ প্রতিবাদে অক্টোবরে বাইডেন প্রশাসন থেকে পদত্যাগ করেছিলেন।

নভেম্বরে স্টেট ডিপার্টমেন্টের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ইউএস এজেন্সি ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ইউএসএআইডি) এর এক হাজারের বেশি কর্মকর্তা অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে  বাইডেন প্রশাসনকে লেখা একটি খোলা চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন।

প্রশাসনের নীতির সমালোচনা করে স্টেট ডিপার্টমেন্টের অভ্যন্তরীণ অন্তত তিনটি প্রতিবাদ দাখিল করার পর সেক্রেটারি অব স্টেট অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন নভেম্বরের একটি চিঠিতে মতবিরোধ স্বীকার করেছেন।

ডিসেম্বরে বাইডেন প্রশাসনের কিছু কর্মী গাজায় যুদ্ধবিরতির দাবিতে হোয়াইট হাউজের কাছে একটি নজরদারি করেছিলেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রকাশ্যে কিছু ইসরায়েলি মন্ত্রীদের বক্তব্যের নিন্দা করেছে এবং গাজায় বেসামরিক মৃত্যু রোধে ইসরায়েলকে চাপ দিয়েছে। সমালোচকরা যুক্তি দেখান যে ওয়াশিংটন ইসরায়েলি নীতিকে প্রভাবিত করার জন্য অস্ত্র ও সাহায্যের প্রধান সরবরাহকারী হিসেবে তার সুবিধা ব্যবহার করছে না।

ইত্তেফাক/এসএটি