বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

জয়পুরহাটে চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্র হত্যায় ১১ জনের মৃত্যুদণ্ড

আপডেট : ৩১ জানুয়ারি ২০২৪, ১৬:১২

জয়পুরহাটে চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্র মোয়াজ্জেম হোসেন হত্যা মামলায় বিশ্ব মানবাধিকার সংস্থার বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর বেদারুল ইসলাম বেদীনসহ ১১ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। একইসঙ্গে প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। 

বুধবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুরে জয়পুরহাট অতিরিক্ত দায়রা জজ-২ আদালতের বিচারক মো. আব্বাস উদ্দীন জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় ৬ আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।

জয়পুরহাট জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আইনজীবী নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডল জানান, মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছেন জয়পুরহাট শহরের দেওয়ানপাড়া মহল্লার বেদারুল ইসলাম বেদীন (৫২), সরোয়ার রওশন সুমন (৪২), মশিউর রহমান এরশাদ বাবু (৪০), মনোয়ার হোসেন মনসুর (৪৩), নজরুল ইসলাম (৪৫), রানা (৪৩), শাহী (৩৮), টুটুল (৪৬), সুজন (৪৪), রহিম (৪২) ও ডাবলু (৪৫)। এ ছাড়া প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় ৬ জন আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন। এরা হচ্ছেন বেদারুল ইসলাম বেদীন, নজরুল ইসলাম, টুটুল, সুজন, রহিম ও ডাবলু।

জানা যায়, জয়পুরহাট শহরের পাঁচুরচক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র মোয়াজ্জেম হোসেন ২০০২ সালের ২৮ জুন বিকাল ৫টার দিকে মাকে বেড়ানোর কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। রাত ৯টা পর্যন্ত বাড়িতে না ফিরলে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে পরিবার জানতে পারে সদরের ভেটি পশ্চিম হাজীপাড়া এলাকায় গুরুতর জখম অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১১টার দিকে মারা যায় মোয়াজ্জেম হোসেন (১৬)। এ ঘটনায় পিতা ফজলুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামি করে জয়পুরহাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই মাহবুব আলম ২০০৩ সালের ২৯ অক্টোবর সাজাপ্রাপ্ত ১১ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এ মামলার চার আসামি আদালতে ১৬৪ ধারায় খুনের সঙ্গে জড়িত বলে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করে। আদালত এ মামলায় ১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন। আদালত দীর্ঘ শুনানির পর বুধবার দুপুরে ১১ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়ে এ রায় ঘোষণা করেন। 

মামলায় সরকারি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন সরকারি কৌসলি নৃপেন্দ্র নাথ মণ্ডল ও আইনজীবী উদয় সিং এবং আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন নন্দকিশোর আগরওয়ালা, আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান ও 
আইনজীবী হেনা কবির। 

উল্লেখ্য, মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১ নম্বর আসামি বেদারুল ইসলাম বেদীন বিশ্ব মানবাধিকার সংস্থার বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ও নিরাপদ সড়ক চাই জয়পুরহাট জেলা কমিটির বর্তমান সভাপতি।

ইত্তেফাক/পিও