বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

টাঙ্গাইল শাড়ি আমাদের ছিল, আমাদেরই থাকবে: বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী 

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২০:২০

‘ভারতের টাঙ্গাইল শাড়ির জিআই (ভৌগোলিক নির্দেশক) স্বত্ব নেওয়া তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়’ উল্লেখ করে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘টাঙ্গাইল শাড়ি আমাদের ছিল, আমাদেরই থাকবে।’

রোবাবর (৪ ফেব্রয়ারি) মতিঝিলে পাট অধিদফতরে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী। এসময় বস্ত্র ও পাট সচিব আব্দুর রউফ, পাট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. সেলিনা হোসেন ও মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

এসময় মন্ত্রী বলেন, টাঙ্গাইল শাড়ির প্যাটেন্ট (ভৌগোলিক নির্দেশক) পেতে জরুরি ও দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মন্ত্রণালয়ে জরুরিভাবে সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে সভা করে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। 

মন্ত্রী আরও বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোয় পাটের উৎপাদন বহুগুণে বেড়েছে। দেশে প্রয়োজনীয় কাঁচা পাট সরবরাহ নিশ্চিতকরণ এবং পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানির ধারা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সব সময় পাটের বাজারদর পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। ফলে পাটকলগুলো নিরবচ্ছিন্নভাবে পাট সংগ্রহ করতে পারছে, যা রপ্তানি আয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। 

এর আগে, গত বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশের টাঙ্গাইল জেলায় উৎপাদিত এ শাড়ির জিআই স্বত্ব নিজেদের বলে দাবি করেছে ভারত। বাংলাদেশের বিখ্যাত এই শাড়িকে নিজস্ব জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি দেয় ভারতের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়। ভারতের সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় তাদের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক পোস্টে এ খবর জানায়। দেশটির এই অদ্ভূত দাবি নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক তৈরি হয়েছে। বাংলাদেশের অনেকেই এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে।  

ইত্তেফাক/ডিডি