বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

পরকীয়া প্রেমে ভাঙলো ১১ বছরের এষার সংসার

আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫:৪৬

বলিউডের অন্যতম তারকা দম্পতি হেমা মালিনী-ধর্মেন্দ্র কন্যা অভিনেত্রী এষা দেওল ২০১২ সালে হিরের ব্যবসায়ী ভরত তখতানির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন। ১১ বছর পর সেই সংসার ভাঙলো এষার।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, অনেকদিন ধরেই খবর ছিল, দুই মেয়েকে নিয়ে মা হেমার সঙ্গে থাকছেন। অন্য দিকে, ভরত নাকি রয়েছেন বেঙ্গালুরুতে। তবে একা নন, কোনও এক ‘প্রেমিকার’ সঙ্গে। ৬ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার ডিভোর্স ঘোষণা করেছেন অভিনেত্রী। 

গেল মাসেই গুঞ্জন উঠেছিল এ তারকা দম্পতির বিচ্ছেদের। আর এক মাস না যেতেই সে গুঞ্জনে সিলমোহর দিলেন এষা। তবে এশা ও ভরতের সংসার কেন ভাঙল সেই বিষয়ে কেউ মন্তব্য না করলেও ভরতের প্রেমের জেরে এই বিচ্ছেদ বলে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ। এষার স্বামী নাকি বেঙ্গালুরুতে তার প্রেমিকার সঙ্গে থাকেন। 

তবে এষার কথায় ‘আমরা পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতেই আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। জীবনের এই চরম মুহূর্তে আমাদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দুই সন্তান। আশা করব, আমাদের ব্যক্তিগত গোপনীয়তা বজায় রাখা হবে।’

এর আগে মা হেমা মালিনীর জন্মদিন থেকে শুরু করে বলিউডের যেকোনো অনুষ্ঠানে এশা একা উপস্থিত হয়েছেন। অবশ্য দেওল পরিবারের অনুষ্ঠানে আবার এষার সঙ্গে স্বামী ভরতকে দেখা যেত। দুই মেয়েকে নিয়ে মায়ের বাড়িতেই থাকেন অভিনেত্রী।

সম্প্রতি ইরা খানের বিয়ের অনুষ্ঠানে মায়ের সঙ্গে দেখা যায় এষাকে। এমনকি অভিনেত্রীর জন্মদিনেও দেখা মেলেনি তার স্বামীর।

২০১৭ সালে প্রথম সন্তান রাধ্যার জন্ম হয়। এর ঠিক দুবছর পর দ্বিতীয় সন্তান মীরার জন্ম হয়।

২০০২ সালে রোমান্টিক থ্রিলার সিনেমা ‘কোই মেরে দিল সে পুছে’ দিয়ে হিন্দি সিনেমায় অভিষেক হয় এশার। ছবিটির জন্য ফিল্মফেয়ারে সেরা নবাগত অভিনেত্রীর পুরস্কার পান এশা। এষাকে দেখা যায় ‘ধুম’, ‘নো এন্ট্রি’, ‘কাল’ ইত্যাদি সিনেমায়।

 

ইত্তেফাক/পিএস

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন