বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

মাঘের শেষে ঈশ্বরদীতে বেড়েছে ঠাণ্ডাজনিত রোগের প্রকোপ  

আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩:৫১

ঈশ্বরদীতে শীতের প্রকোপে ঠাণ্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে সাধারণ মানুষ। বৃহস্পতিবার থেকে তাপমাত্রা কমতে শুরু করায় বেড়েছে রোগের প্রকোপ। দিনের আকাশ পরিষ্কার থাকলেও উত্তরের হিমশীতল বাতাসের তীব্রতায় শীত বাড়ছে। এতে নিম্নবিত্ত ও চরাঞ্চলের বাসিন্দাদের পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। শীতের তীব্রতা বাড়ায় ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। 

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঈশ্বরদী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সকালে হাসপাতালের বহির্বিভাগে প্রায় ৬০০ রোগী চিকিৎসা নিয়েছে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, এসব রোগীর বেশিরভাগই জ্বর ও ঠাণ্ডায় আক্রান্ত। 


 
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আসমা খান জানান, হাসপাতালে জ্বর ও ঠাণ্ডাজনিত রোগে আক্রান্তরা ভিড় করছেন। কোন বেড ফাঁকা নেই। বেড না পেয়ে বাড়ি থেকে বিছানাপত্র নিয়ে এসে নিচে ও করিডোরে চিকিৎসা নিচ্ছেন। শীতজনিত রোগে আক্রান্তদের মধ্যে শিশু ও বয়স্কদের সংখ্যা বেশি। ঠাণ্ডা লাগা থেকে সামান্য জ্বর হলেই এবারে তা টাইফয়েডের দিকে গড়াচ্ছে বলে জানান তিনি।
 
ঈশ্বরদী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক নাজমুল হক রঞ্জন জানান, জানুয়ারির শুরু থেকেই তাপমাত্রা নামতে শুরু করে। ৩১ জানুয়ারি তাপমাত্রা একটু বেড়ে ১৫ দশমিক ৩ ডিগ্রিতে ওঠে। তবে বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) থেকে আবারও তাপমাত্রা নিচে নামতে থাকে।

ইত্তেফাক/এসএআর/পিও