বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ফের পবিপ্রবিতে শিক্ষক লাঞ্ছণার অভিযোগ

আপডেট : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:১২

ফের শিক্ষক লাঞ্ছণার ঘটনা ঘটেছে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে(পবিপ্রবি)। আবারও সেই বিতর্কিতভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত এবং বারংবার শিক্ষকদের লাঞ্ছিত করার মূলহোতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পিওটু প্রোভিসি মো. সামসুল হক ওরফে রাসেলের বিরুদ্ধে।

শনিবার(১৭ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯টায় পবিপ্রবির বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের জন্য নির্ধারিত কৃষিকুঞ্জের ডাইনিং কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির নিকট লিখিত অভিযোগে সহকারী অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলেন, অভিযুক্ত রাসেল শনিবার ডাইনিং এ আমাকে উদ্দেশ্য করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং উপস্থিত অন্য শিক্ষকদের সামনেই আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে এবং পরবর্তীতে আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে এই বলে, ‘তোকে যেখানে পাবো সেখানেই মারবো’। সে আমাকে জীবননাশের হুমকিও দেয় এবং বলে, ‘তোর পেছনে কে আছে দেখে নেবো, তুই যা, দেখি তোর মাইর কে বাঁচায়’।

এছাড়াও অভিযুক্ত রাসেল উপস্থিত শিক্ষকদের উপেক্ষা করে তাকে আঘাত করে বলে তিনি অভিযোগ করেন। 

ঘটনার বিষয়ে অভিযুক্ত সামসুল হক ওরফে রাসেল বলেন, শেখ তানজিলা দোলার সাথে নজরুলের বিভাগীয় বিষয়ে মতানৈক্য সৃষ্টি হয়। দোলা আমার আত্মীয় হওয়ায় আমি নজরুলকে তার সাথে কোনো ঝামেলা না করার জন্য অনুরোধ করি। পরবর্তীতে এই বিষয়ে তার সাথে কথা কাটাকাটির সৃষ্টি হয়। তবে অভিযুক্ত রাসেল মারামারির বিষয়টি অস্বীকার করেন। 

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক জেহাদ পারভেজ বলেন, ঘটনা পরবর্তী ভুক্তভোগী শিক্ষক আমাকে মুঠোফোনে বিষয়টি অবগত করেছেন। আমরা শিক্ষক সমিতি রবিবার একটি সাধারণ সভা আহবান করেছি সেখানে বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

এর আগেও অভিযুক্ত মো. সামসুল হক ওরফে রাসেল সহকারী অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন মন্ডলকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন, যার ভিডিও ইতিমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এছাড়াও মাসে ৪৫ দিনের বেতন নেওয়া, নিয়মিতভাবে অফিস না করাসহ নানা বিতর্কে বিতর্কিত তিনি। 

ইত্তেফাক/এএইচপি