সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

‘কতদিন ধরে ঘুরতেছি কেউ পাত্তা দেয় না’

আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:৩৭

‘আমাদের টাকা আমরা চাই’ পরিশ্রম করেছি টাকা কেন দিবে না? এমনই হাজারো প্রশ্ন তুলে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ঢোলারহাট ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে অবস্থান নিয়েছেন শতাধিক শ্রমিক।

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ওই ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে গেলে এমনি দৃশ্য চোখে পড়ে। নারী-পুরুষ উভয় শ্রমিক মিলে তুলেছেন তাদের দাবি। এদিকে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বলছেন কাগজপত্র পাঠানো হয়েছে পিআইও অফিসে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নিজের কাজের টাকা নেওয়ার আশায় বেশ কিছুদিন ধরেই স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের দুয়ারে দুয়ারে ঘুড়ছেন ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ঢোলারহাট ইউনিয়নের ১শ জন শ্রমিক। ২০২৩ সালের ৭ নভেম্বর অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচি (৪০ দিনের) আওতায় কাজ শুরু করেন ওই শ্রমিকেরা। শেষ হয় চলতি বছরেরর ৮ জানুয়ারি। এই কাজে দৈনিক হাজিরা ৪০০ করে দেওয়ার কথা থাকলেও দেওয়া হয়নি কোনো পারিশ্রমিক। বলা হয়েছিলো প্রকল্প শেষ হলে সম্পূর্ণ টাকা দেওয়া হবে। তবে কর্মসূচির মেয়াদ শেষ হলেও এখনো দেওয়া হচ্ছে না সেই অর্থ। কোনো উপায় না পেয়ে রোববার সকালে শ্রমিকেরা একত্রিত হয়ে পাওনা টাকা চেয়ে ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে গিয়ে অবস্থান করেন। 

রওশনা, নূর হোসেন, বিশ্বনাথসহ বেশ কয়েকজন শ্রমিক বলেন, কাজ যখন শুরু হয় আমাদের দৈনিক হাজিরা দেবার কথা ছিল। তখন বলেছে যে কাজ শেষে টাকা দিবে। কিন্তু এখন কোনো খবর নেই। কতদিন ধরে ঘুরতেছি কেউ পাত্তা দেয় না। চেয়ারম্যানকে বললে তিনি বলে এত অধৈয্যের কি আছে। আমরা কেউ সুদের ওপর টাকা নিয়ে পরিবার চালাচ্ছি। আমরা এত কিছু বুঝি না আমাদের পাওনা টাকা দ্রুত সময়ে আমরা চাই।

ঢোলারহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অখিল চন্দ্র রায় বলেন, আমার তো এখানে কিছু করার নাই। আমি কাগজপত্র সব পিআইও অফিসে পাঠিয়ে দিয়েছি। তাদের সঙ্গে কথাও বলেছি। তারা বলেছে কিছু সময়ের মধ্যে শ্রমিকেরা টাকা পাবে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) জাহাঙ্গীন আলম বলেন, অল্প সময়ের মধ্যেই শ্রমিকেরা পারিশ্রমিক পাবেন।

ইত্তেফাক/পিও