সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান জন্মোৎসব অনুষ্ঠিত

আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২১:৩৯

প্রখ্যাত গীতিকবি মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানের জন্মোৎসব-২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানকে উত্তরীয়, ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানানো হয় এবং ‘মাঠের সবুজ থেকে সূর্যের লাল’ শিরোনামে ৪০০ পৃষ্ঠার একটি সম্মাননা গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন শেষে কেক কাটা হয়।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রাজধানীর নতুন বাজার সংলগ্ন পূর্ব ভাটারায় আনন সেন্টারে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।

স্বাধীনবাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসৈনিক আশরাফুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী সৈয়দ আব্দুল হাদী।

সৈয়দ আব্দুল হাদী বলেন, মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান নিপাট একজন ভদ্রলোক। আমার প্রিয় বন্ধু, সহকর্মী। তিনি আত্মমর্যাদা শব্দটিকে সবচেয়ে বড় মনে করেন।

কবি নাসির আহমেদ বলেন, মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান গীতিকারদের লিজেন্ড, একজন গাইড। তার আগেও কেউ নেই, পরেও নেই, তার গানের কথা মানে কবিতা কালোত্তীর্ণ।

কবি ও নাট্যকার ফরিদ আহমদ দুলাল বলেন, মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান গানের কবিতা রচনা করেছেন বলেই তাকে আমি গীতিকবি হিসাবে গ্রহণ করেছি। তার ছন্দ-প্রকরণ-ব্যাকরণ মেনে গান লেখার কৌশল আমাকে মুগ্ধ করে।

মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানের সহধর্মিণী জিন্নাত আরা জামান বলেন, মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানের জন্মোৎসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে আনন ফাউন্ডেশন, যার সভাপতি স ম শামসুল আলম। তাকে আমার ছেলে হিসেবে জানি। আনন ফাউন্ডেশনের সঙ্গে জড়িত সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।

মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, আজ যেটা আনন ফাউন্ডেশন আমার জন্য করল এটা আমার জীবনের সেরা পুরস্কার। ভালোবাসার চেয়ে বড় পুরস্কার আর হয় না।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে গীতিকার আসিফ ইকবাল বলেন, বাংলা গানের অসামান্য বাণী রচয়িতা মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান। তাকে আমি বাংলাদেশের সেরা গীতিকার বলেই মনে করি। তার শত শত গানের কথা বলা যায় অবিস্মরণীয় হয়ে আছে, থাকবে।

সভাপতির বক্তব্যে আশরাফুল আলম বলেন, বুকের ভেতর প্রকৃত ভালোবাসা না থাকলে এ রকম একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা সম্ভব নয়। এজন্য আমি আনন ফাউন্ডেশনের সভাপতি স ম শামসুল আলমকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আর মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান সম্পর্কে বলতে চাই, তার গানের জন্য লেখা কবিতা সুর দেওয়ার আগে আমি পড়তাম আর অনন্য স্বাদ পেতাম।

অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন রূপা চক্রবর্তী, মাসুম আজিজুল বাশার ও মনিরুজ্জামান পলাশ। এতে আনন ফাউন্ডেশনের নৃত্য বিভাগের শিক্ষার্থী শিশুদের ‘মাঠের সবুজ থেকে সূর্যের লাল’ ও ‘আমাদের দেশটা স্বপ্নপুরী’ গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করে। এরপর আনন ফাউন্ডেশনের শিক্ষার্থী শিশুরা মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানের লেখা গান ও কবিতা আবৃত্তি পরিবেশন করে।

অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানের লেখা গান পরিবেশন করেন সংগীতশিল্পী দিনাত জাহান মুন্নী, চম্পা বণিক, তৌফিকুল ইসলাম মাসুদ ও আদনীনা মৌরীন। মোহাম্মদ রফিকউজ্জামানের লেখা কবিতা আবৃত্তি করেন, রূপা চক্রবর্তী, শফিকুল ইসলাম বাহার, মাসুম আজিজুল বাসার ও জান্নাতুল ফেরদৌস মুক্তা।

ইত্তেফাক/এবি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন