বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

পাকিস্তান-ভারত ম্যাচের টিকিটের চাহিদা তুঙ্গে

আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৯:৫০

ফুটবলে যেমন আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের ম্যাচকে ঘিরে ভক্তদের মধ্যে কাজ করে বাড়তি উত্তেজনা। ক্রিকেটেও ঠিক তেমনটি গেল কয়েক দশক ধরে রেখেছে ভারত-পাকিস্তান। এই দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক ভালো না থাকায় আইসিসি এবং এসিসির বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট ছাড়া কোনো দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলতে দেখা যায় না বিরাট কোহলি-বাবর আজমদের। তাই এই দুই দেশের ‘ক্রিকেটীয় যুদ্ধ’ মাঠে বসে উপভোগ করতে ভক্তদের অপেক্ষা করতে হয় বৈশ্বিক টুর্নামেন্টের জন্য। তখন এই দুই দেশের ব্যাটে-বলের মহারণ দেখতে পকেটের বাড়তি অর্থ খরচ করতে রাজি থাকেন ক্রিকেট ভক্তরা।

আগামী ২ জুন যুক্তরাষ্ট্র এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসর। চার-ছক্কার লড়াইয়ে দেখতে বাকি আর মাত্র মাস তিনেক। ইতিমধ্যে এই সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিশ্বকাপে টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে গেল বৃহস্পতিবার থেকে। এই টুর্নামেন্টের টিকিট বিক্রি শুরু হওয়ার পর থেকে প্রিয় দলের দেখা মাঠে বসে উপভোগ করতে অনলাইনে টিকিট সংগ্রহ করছেন ভক্তরা। 

২ জুন বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার পর ৯ জুন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামের মাঠে নামবে ক্রিকেট বিশ্বের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান। নিউ ইয়র্কের এই মাঠের দর্শক ধারণক্ষমতা প্রায় ৩৪ হাজার, আর খেলা অনুষ্ঠিত হবে মোট ৮টি। তবে এই মাঠে অন্য সব ম্যাচ থেকে তুলনামূলক ভাবে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচকে ঘিরে দর্শকদের আগ্রহ কয়েক গুণ বেশি।

এই দুই দলের ম্যাচকে ঘিরে ভক্তদের মধ্যে কতটা উত্তেজনা এবং উন্মাদনা কাজ করে সেটা পাকিস্তান-ভারত ম্যাচের টিকিট বিক্রি দেখলেই বোঝা যায়। এই ম্যাচের ধারণক্ষমতার চেয়ে প্রায় বিশ গুণ বেশি ক্রিকেট সমর্থক হিট করেছে বিশ্বকাপের টিকিট বিক্রির ওয়েবসাইটে। দর্শকের চাহিদা থাকায় এই ম্যাচের টিকিটের মূল্য বেশি অন্য ম্যাচগুলোর তুলনায়। যেখানে শুরুতে ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচের সর্বনিম্ন টিকিটের মূল্য ১৭৫ মার্কিন ডলার। 

এছাড়াও এই ম্যাচ দেখতে টিকিট ক্যাটাগরিতে ৩০০ থেকে ৪০০ ডলার পর্যন্ত গুনতে হবে দর্শকদের। যা বাংলা টাকায় প্রায় ২০ হাজার থেকে ৪৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। এই হাইভোল্টেজ ম্যাচ নিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ইভেন্ট আয়োজনের যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ব্রেট জোনস বলেন, ‘এই ম্যাচকে ঘিরে দর্শকদের উত্সাহের মাত্রা দেখানোর জন্য টিকিট বিক্রির কোনো ডেটা পয়েন্ট নেই। আমরা যে সমর্থন দেখছি, তাতে আমরা সত্যিই রোমাঞ্চিত।’

ইত্তেফাক/জেডএইচ