বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ঐশ্বরিয়াকে ‘প্লাস্টিক’ বলেছিলেন ইমরান হাশমি!

আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪:৩৮

বলিউড অভিনেত্রী ও বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বরিয়া রাই এর রূপে যেন বুঁদ হয়ে থাকেন সব বয়সের দর্শক। অথচ একসময় নীল নয়না ঐশ্বরিয়ার এই সৌন্দর্যকেই তুড়ি মেড়ে উড়িয়ে ‘প্লাস্টিক’ তকমা দিয়ে বসেছিলেন অভিনেতা ইমরান হাশমি।

তবে এতবড় কথা বলে ছাড় পায়নি ইমরান। সে কারণে তাকেও শুনতে হয়েছিল নানা কটুকথা। সম্প্রতি ‘কফি উইথ করণ’ এর আগের একটি এপিসোডে ঐশ্বরিয়াকে ইমরানের বলা শব্দটি নিয়ে নতুনভাবে চর্চা শুরু হয়েছে।

হিন্দুস্তান টাইসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, করণ জোহরের জনপ্রিয় ও বিতর্কীত শো ‘কফি উইথ করণ’-এ একবার ইমরান হাশমি মুখ ফসকে ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনকে বলে ফেলেছিলেন প্লাস্টিক। 

২০১৪ সালে এই শোয়ের চতুর্থ পর্বে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ইমরান হাশমি এবং পরিচালক মহেশ ভাট। শো চলাকালীন অতিথিদের সঙ্গে একটি প্রশ্নোত্তর পর্ব চালান সঞ্চালক করণ। 

করণ জোহরের সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের একটি র‍্যাপিড ফায়ার সেগমেন্টের মুখোমুখি হতে হয়। ইমরানকেও সেটি ফেস করতে হয়েছিল। প্রশ্ন ছিল, কয়েকজন নায়িকার নাম বলা হবে। নাম শোনার পর ইমরানের মনে প্রথম যে শব্দটি আসবে সেটিই সে বলবে।

প্রশ্নোত্তর পর্বে নিয়মানুযায়ী ইমরানকে কয়েকটি শব্দ বলেন করণ। শব্দগুলি শোনার পর বলিপাড়ার যে তারকার কথা প্রথমে মনে আসবে সেই নামই জবাবে বলতে হত ইমরানকে।

করণ যখন ‘প্লাস্টিক’ শব্দটি উচ্চারণ করে ইমরানের দিকে তাকান, তখন অভিনেতা চটজলদি ঐশ্বরিয়ার নাম উল্লেখ করেন। সেই শোয়ে মহেশকে ‘ডাকাত’ বলেও উল্লেখ করেন ইমরান। 

তবে সেই পর্ব নিয়ে এবার মুখ খুললেন ইমরান। জানিয়ে দিলেন তিনি মোটেও ও কথা মুখে আনতে চাননি। আসলে তিনি চেয়েছিলেন গিফট বক্স জিততে। 

এক সাক্ষাৎকারে ইমরান জানিয়েছিলেন, তিনি ঐশ্বরিয়ার বিরাট ভক্ত। আমার ভালোলাগে ওকে। আমি সবসময়ই ওর কাজের একজন দারুণ ভক্ত। আমি জানতাম লোকে একটাকে নিয়ে বড় কিছু গোল পাকাবে… তাতে কি, মানুষ সব সময় ফালতু কথা বলেই বড় চুক্তি করে’। 

এছাড়া এই মন্তব্যের পর ঐশ্বরিয়ার কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমাও চান ইমরান। তবে এই মন্তব্য করে যে বলিউডের অন্দরমহলে তিনি অনেক শক্র তৈরি করেছিলেন, তা অস্বীকার করেননি তিনি।

আগামীতে 'শোটাইম' ছবিতে দেখা যাবে অভিনেতাকে। ইমরানের পাশাপাশি অভিনয় করছেন মৌনি রায়, রাজীব খান্ডেলওয়াল সহ অন্যান্যরা।

 

 

ইত্তেফাক/পিএস