বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

পশুর চ্যানেলে দুর্ঘটনা 

এখনো ঝুঁকিমুক্ত হয়নি কার্গোটি, চলছে কয়লা অপসারণ

আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৪৮

মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানে‌লের দুর্ঘটনাকবলিত কয়লাভর্তি কার্গো জাহাজ এমভি ইশরা মাহমুদ এখনও ঝুঁকিমুক্ত করা সম্ভব হয়নি। গতকাল শনিবার দুপুরে শুরু হওয়া কয়লা অপসারণের কাজ চলছে আজ রোববারও। উদ্ধারকারী বার্জের মাধ্য‌মে এখন পর্যন্ত প্রায় ৪শ টন কয়লা কার্গোটি থেকে সরানো সম্ভব হয়েছে। তবে চ্যানেল দিয়ে দেশি-বিদেশি জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।  

কয়লা আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, আমাদের কয়লাভর্তি কার্গো জাহাজ এমভি ইশরা মাহমুদের দুর্ঘটনার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে গিয়ে এটি সরিয়ে কিনারায় ‌নোঙ্গর করা হয়। এখন স্থানীয় দুই শতাধিক শ্রমিক দিয়ে অন্য একটি বার্জে কয়লা অপসারণ করা হচ্ছে। আরও দেড় থেকে আড়াইশ টন কয়লা অপসারণ করলে জাহাজটি ঝুঁকিমুক্ত হবে। এরপরই আমরা সেটিকে নোয়াপাড়ায় নিয়ে যাবো।

মোংলা বন্দরের হারবাড়িয়া এলাকার ৬ নম্বর এ্যাংকারেজ বয়ায় অবস্থানরত একটি বিদেশি মাদার ভ্যাসেল থেকে গত শুক্রবার ৯৫০ মেট্রিক টন কয়লা নেয় কার্গো জাহাজ এমভি ইশরা মাহমুদ। গতকাল জাহাজ থেকে নওয়াপাড়া উদ্দেশে যাওয়ার জন্য বানিয়াশান্তা বাজার সংলগ্ন একটি মুড়িং বয়ায় নোঙ্গর করে জোয়ারের অপেক্ষা করছিল। কিন্তু সেখানে কার্গোটি তলা ফেটে ডুবতে শুরু করে। বিষয়টি বুঝতে পেরে জাহাজের মাস্টার দ্রুত সেটিকে পশুর চ্যানেলের পূর্ব পাশের সিগনাল টাওয়ার এলাকার একটি ডুবোচরে উঠিয়ে দেন। পরে জাহাজে থাকা ১১ নাবিক সাঁতরে পাড়ে উঠেন।

দুর্ঘটনার পরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বন্দর ও প্রশাসনের কয়েকটি টিম। এছাড়া মালিক ও পরিবহনকারী প্রতিষ্ঠানের লোকজনও সেখানে রয়েছে। কার্গোটি মূল চ্যানেলের বাইরে থাকায় দেশি-বিদেশি পণ্যবাহী জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। 

কয়লা আমদানীকারক আবুল খায়ের গ্রুপের সুপারবাইজার মনিরুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনাকব‌লিত কার্গোটির কি কারণে এবং কোন স্থান ফেটে গেছে, তা চিহ্নিত করা হয়েছে। গতকাল দুপুর থেকে এখন প্রায় সাড়ে ৪শ টন কয়লা অপসারণ করা হয়েছে। আরও প্রায় দুই’শ টন কয়লা অপসারণের পর এখান থেকে চলে যাওয়া যাবে।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি